জামালপুরে বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন

বক্তব্য রাখেন জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার’ এই আওয়াজ সামনে রেখে এবং পুলিশি সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে ২৯ আগস্ট জামালপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের বামুনপাড়া গ্রামে অনুষ্ঠিত হয় বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি। কার্যক্রম উদ্বোধন করেন জামালপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহ শিবলী সাদিক। সভায় সভাপতিত্ব করেন মানবাধিকার সংগঠক জাহাঙ্গীর সেলিম।

সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালেমুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) তরিকুল ইসলাম, ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর খন্দকার কামরুল ইসলাম মিল্টন, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নাসরিন বেগম, এলাকার প্রতিনিধি মো. রফিক, উদয়ন ক্লাবের সদস্য মোস্তাক হোসেন প্রমুখ।

বিট কার্যক্রমের ব্যাখ্যা দিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহ শিবলী সাদিক বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় মহাপুলিশ পরিদর্শকের তত্ত্বাবধানে মানুষের ঘরে ঘরে সেবা পৌছে দেওয়ার জন্য সারা বাংলাদেশে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মানুষকে আর কষ্ট করে কোনো অভিযোগ নিয়ে থানায় যেতে হবে না। স্ব স্ব ওয়ার্ডে স্থাপিত কার্যালয়ে ভুক্তভোগী তার অভিযোগ জানাতে পারবে। বিট কার্যালয়ের আওতায় দুজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ সাতজন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ এলাকাবাসী। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

বিট পুলিশিং কার্যক্রমের মাধ্যমে এলাকায় মাদক, জুয়া, বাল্যবিয়েসহ সব ধরনের সমাজবিরোধী তৎপরতা নির্মূলে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হবে। এছাড়া যে কোনো ধরনের ঝুঁকি নিরসনে কাজ করবে বিট পুলিশিং দল।

পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি বলেন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে বিশেষ করে বামুনপাড়া গ্রাম থেকে সকল প্রকার অপরাধ নির্মূলে আমরা বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে সর্বাত্মক সহায়তা করবো।

সভা শেষে বামুনপাড়া মোড়ে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের জন্য প্রস্তাবিত কার্যালয়ের ঘর পরিদর্শন করেন অতিথিবৃন্দ।

২৯ আগস্ট জামালপুর পৌরসভার ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। পাশাপাশি এই দুই ওয়ার্ডে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ এবং সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোস্তাফিজুর রহমানকে পরিচয় করিয়ে দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহ শিবলী সাদিক। সভায় ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের তিনশতাধিক মানুষ অংশ নেন।

Views 57 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad