জামালপুরে অঙ্গন নাট্যোৎসব : পশ্চিমবঙ্গের লোককবি দেবব্রত সিংহের ‘তেজ’ নাটক মঞ্চস্থ

বীর মুক্তিযোদ্ধ গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু মিলনায়তনে মঞ্চস্থ ‘তেজ’ নাটকের কয়েকটি দৃশ্য। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাংলারচিঠিডটকম : জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী নাট্য সংগঠন থিয়েটার অঙ্গনের আয়োজনে ১৪ মে থেকে চারদিনব্যাপী অঙ্গন নাট্যোৎসব শুরু হয়েছে। জামালপুর শহরের সিংহজানি হাইস্কুল রোডে নবনির্মিত জামালপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমীর বীর মুক্তিযোদ্ধা গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু মিলনায়তনে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। এই নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের লোককবি দেবব্রত সিংহ।

বীর মুক্তিযোদ্ধ গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু মিলনায়তনে মঞ্চস্থ ‘তেজ’ নাটকের কয়েকটি দৃশ্য। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

১৪ মে রাতে অঙ্গন নাট্যোৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোকলেছুর রহমান এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন থিয়েটার অঙ্গনের অধিকারী নাট্যকার ও নির্দেশক শাহীন রহমান। এতে সম্মানিত অতিথি এবং উদ্বোধকের বক্তব্য রাখেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের লোককবি দেবব্রত সিংহ। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন  জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. হারুন অর রশিদ, নাট্যকার আসাদুল্লাহ ফারাজী, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কালচারাল অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানা প্রমুখ। এছাড়াও অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রকৌশলী মো. মোজাফফর হোসেন ‘তেজ’ নাটক মঞ্চস্থকালে মিলনায়তনে উপস্থিত হন এবং নাটকটি উপভোগ করেন।

থিয়েটার অঙ্গনের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ফাহিম মালিক ইভানের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলোচনা পর্ব শেষে অতিথিদের সাথে নিয়ে মোম প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে চারদিনব্যাপী এই নাট্যোৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের লোককবি দেবব্রত সিংহ।

বীর মুক্তিযোদ্ধ গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু মিলনায়তনে মঞ্চস্থ ‘তেজ’ নাটকের কয়েকটি দৃশ্য। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম
বীর মুক্তিযোদ্ধ গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু মিলনায়তনে মঞ্চস্থ ‘তেজ’ নাটকের কয়েকটি দৃশ্য। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

নাট্যোৎসবের উদ্বোধনী প্রদর্শনীতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের লোককবি দেবব্রত সিংহের ‘তেজ’ নাটকটি মঞ্চস্থ হয়। কবি নিজেই তার ‘তেজ’ কবিতাটিকে নাট্যরূপ দিয়েছেন। নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন শাহীন রহমান। নাটকটিতে সমাজে টিকে থাকতে শিক্ষা ও আত্মনির্ভরশীলতাকে গুরুত্ব দিয়ে একটি সাধারণ পরিবারের প্রতিবাদী সংগ্রামী জীবন ও সেই পরিবারের এক কিশোরী মেয়ের রুখে দাঁড়ানোর তেজের সফলতার চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

নাটকটির রচয়িতা কবি দেবব্রত সিংহের মতে নাটকটি শুধু এপার-ওপার দুই বাংলার সমাজিক নানা অসঙ্গতিই তুলে ধরা হয়নি এক অর্থে তৃতীয় বিশ্বের অতি সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার, শোষণ, নির্যাতনের খন্ডচিত্র তুলে ধরা হয়েছে এই নাটকের মাধ্যমেই। বিপুল সংখ্যক দর্শক নাটকটি উপভোগ করেন। দুই বাংলার মধ্যে বাংলাদেশের জামালপুর জেলাতেই প্রথম ‘তেজ’ নাটকটি মঞ্চস্থ হলো বলেও তিনি উল্লেখ করেন। এ জন্য তিনি সবার কাছে কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন এবং নাট্যোৎসবের সফলতা কামনা করেন।

চারদিনব্যাপী এই নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় দিন ১৫ রাতে মঞ্চস্থ হয় টাঙ্গাইল জেলার ঐতিহ্যবাহী লোক আঙ্গিক ‘সঙযাত্রা’। এ ছাড়া তৃতীয় দিন ১৬ মে রাতে ‘ধুয়া গান এবং ১৭ মে সিরাজগঞ্জ জেলার নাট্যদল নাট্যধারা প্রযোজিত ‘ছাগতত্ত্ব’ নাটকটি মঞ্চস্থ হবে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad