স্কুলছাত্রীর গালে চুমু দিয়ে শ্রীঘরে তিন যুবক

সুজন সেন, নিজস্ব প্রতিবেদক, শেরপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় এক স্কুল ছাত্রীকে প্রকাশ্যে চুমু দেয়ার অপরাধে তিন যুবককে শ্রীঘরে পাঠিয়েছে আদালত। এর আগে ৯ জানুয়ারি রাতে দশম শ্রেণি পড়ুয়া ওই স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক চুমু দেওয়ায় ঘটনায় যুবকদের গ্রেপ্তার করে নালিতাবাড়ী থানা পুলিশ। পরে ১০ জানুয়ারি বিকেলে অভিযুক্ত যুবকদের আদালতে হাজির করলে ওই আদেশ আসে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার সন্নাসীভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রায়ই রাস্তায় উত্যক্ত করত নলজোরা গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে মেহেদী হাসান (২০)। কিন্তু ওই ছাত্রী এতে রাজি না হয়ে তার পরিবারের লোকজনদের জানায়। এরপর থেকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই তার ভাই আবু আনসারি ছোট বোনের চলার পথে এগিয়ে দিয়ে যেত। কিছুদিন আগে বাড়ি থেকে বিদ্যালয়ে আসার পথে বখাটে মেহেদী ও তার বন্ধুরা ওই স্কুলছাত্রীর সাথে তার ভাই আবু আনসারিকে আসতে দেখে মারধর করে। পরে এ নিয়ে গ্রাম্য সালিশে বিষয়টি সুরাহা করা হয়।

এদিকে ৬ জানুয়ারি বেলা সাড়ে বারোটার দিকে ওই শিক্ষার্থী বিদ্যালয় থেকে বাড়ি যাচ্ছিল। পথিমধ্যে চেল্লাখালী নদী তীরবর্তী রাস্তায় মেহেদী তার বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে পথ রোধ করে এবং প্রকাশ্যে গালে চুমু দিয়ে বসে। বিষয়টি জানাজানি হলে ভুক্তভোগীর পিতা বাদী হয়ে ৯ জানুয়ারি নালিতাবাড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওইদিন রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মেহেদী হাসান, তার বন্ধু দক্ষিণ রানীগাঁও গ্রামের মুছা মিয়া (১৯) ও অপর বন্ধু কৃষ্ণপট্টি গ্রামের তুষারকে (২০) গ্রেপ্তার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নালিতাবাড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত তিন আসামিকে আদালত কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। এ ছাড়া এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সন্নাসীভিটা উচ্চ বিদ্যালয়সহ আশপাশের বিদ্যালয়গুলোর ছাত্রীদের নিয়ে ১০ জানুয়ারি বিকেলে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় এ ধরনের ঘটনার সন্মুখীন হওয়ার সাথে সাথে তার (পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) নাম্বারে (০১৭১৩৩৭৩৫২৫ অথবা ৯৯৯) অবহিত করতে বলা হয়েছে।

Views 22 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad