যমুনা সার কারখানার বর্জ্যে পাঁচ লাখ টাকার পুকুরের মাছে মড়ক

সরিষাবাড়ীতে যমুনা সার কারখানার বিষাক্ত বর্জ্যে এভাবেই মরে ভেসে ওঠেছে পুকুরের মাছ। ছবি : বাংলার চিঠি ডটকম

মমিনুল ইসলাম কিসমত, সরিষাবাড়ী ॥
যমুনা সার কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য পুকুরের পানিতে মিশে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মাছ মরে গেছে। জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের কান্দারপাড়া গ্রামের বিভিন্ন ডোবা ও গর্তে জমে থাকা কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য বৃষ্টিতে পুকুরের পানিতে মিশে এ ক্ষতি হয়।

২৭ জুলাই দুপুরে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে দেখা যায়, কান্দারপাড়া মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি ইউপি সদস্য মিজানুর রহমানের ৫০ শতক জমির পুকুরের সব মাছ মরে গেছে। চিতল, রুই, কাতলা, মৃগেল, তেলাপিয়াসহ প্রায় ১০টি প্রজাতির ছোটবড় মাছ মরে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি অভিযোগ করেন, ‘বিষয়টি মৎস্য দপ্তরে বারবার জানানোর পরও কেউ সরেজমিন পরিদর্শন করতে আসেনি। মৎস্য কর্মকর্তা পুকুরে অক্সিজেন-এ এবং চুন মিশাতে মুঠোফোনে পরামর্শ দেন। সেগুলো দেওয়ার পরই সব মাছ মরে যায়।’

এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজমুল হক বলেন, ‘মাছ মরার খবর শুনেছি, তবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়নি। মাছচাষিকে মুঠোফোনে কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।’ কারখানার বর্জ্যে মাছ মরলে মৎস্য দপ্তরের কোনো কিছু করার নেই বলে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।

যমুনা সার কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাহবুবা সুলতানা বলেন, ‘কারখানার বর্জ্যে মাছ মরে গেছে কিনা- অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দেখব।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফিরোজ আল মামুন জানান, বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলবো।

Views 87   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad