মেলান্দহে ১০টি কবর থেকে কঙ্কাল চুরি

মেলান্দহের শাহজাদপুর মধ্যপাড়া কবরস্থানের ১০টি কবর থেকে কঙ্কাল চুরি হয়েছে। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার শাহজাদপুর মধ্যপাড়া কবরস্থানের ১০টি কবর থেকে মানুষের কঙ্কাল চুরির ঘটনা ঘটেছে। ১১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে এ চুরির ঘটনা ঘটে। ১২ ফেব্রুয়ারি এ ব্যাপারে মেলান্দহ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে।

জানা গেছে, মেলান্দহ পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের শাহজাদপুর মধ্যপাড়ায় জামিয়া হুসাইনিয়া আরাবিয়া মাদরাসার পাশে শাহজাদপুর মধ্যপাড়া কবরস্থানটি দীর্ঘদিনের পুরনো। স্থানীয় পাঁচটি গ্রামের মৃত মুসলিম ব্যক্তিদের এই কবরস্থানে দাফন করা হয়। ১১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে সংঘবদ্ধ অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা নতুন-পুরাতন ১০টি কবর খুঁড়ে সম্পূর্ণ কঙ্কাল চুরি করে নিয়ে গেছে। ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টার দিকে কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজের রাজমিস্ত্রি আলী আকবর (৬০) কাজ করতে গিয়ে কবর থেকে কঙ্কাল চুরি হওয়ার ঘটনা টের পান। পরে মেলান্দহ থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কবরস্থান থেকে দুর্বৃত্তদের ফেলে রেখে যাওয়া তিনটি গেঞ্জি, একটি ব্যাগ ও ২টি মার্তুল (নাট বল্টু খোলার যন্ত্র) জব্দ করেছে।

কঙ্কাল চুরির ঘটনা জানাজানি হলে সকাল থেকেই এলাকাবাসীরা সেখানে ভিড় করেন। তারা সবাই দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। ওই মাদরাসা সংলগ্ন মসজিদ কমিটির সভাপতি মো. মমতাজ আলী শেখ ১০টি কবর থেকে কঙ্কাল চুরির ঘটনায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে মেলান্দহ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

মসজিদ কমিটির সভাপতি মো. মমতাজ আলী শেখ বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, এই কবরস্থানটি প্রায় ৪৫ বছরের পুরনো। স্থানীয় পাঁচটি গ্রামের মৃত ব্যক্তিদের এখানে দাফন করা হয়ে থাকে। কঙ্কাল চোরদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

মেলান্দহ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নজরুল ইসলাম বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, দুর্বৃত্তদের ফেলে রেখে যাওয়া তিনটি গেঞ্জি, একটি ব্যাগ ও ২টি মার্তুল জব্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad