জামালপুরে ফিনল্যান্ডের নাগরিক এক বিদ্যুৎ প্রকৌশলীর মৃত্যু

প্রকৌশলী জুহা কেলেভির মরদেহ নিতে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে আফ্রিকান নাগরিক প্রকৌশলী রাইমো সাইলাকিভি ও অন্যান্য সহকর্মীবৃন্দ। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুরে ইউনাইডেট গ্রুপের বিদ্যুৎ উৎপাদন প্লান্টে কর্মরত প্রকৌশলী জুহা কেলেভি লেমপিনেন (৪২) নামের ফিনল্যান্ডের একজন খ্রিস্টান নাগরিক হার্ট অ্যাটাকে জামালপুর সদর হাসপাতালে মারা গেছেন। ১৯ জানুয়ারি সকাল ৯টায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মারা যান। তাঁর বাড়ি ফিনল্যান্ডের পুলতেরিকুজার ভাসা এলাকায়।

ইউনাইডেট গ্রুপের ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ কম্পানির বিদ্যুৎ বিভাগের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. রিয়াজুল আলম বাংলারচিঠি ডটকমকে জানান, তাদের বিদ্যুৎ প্লান্টে ফিনল্যান্ডের ওই নাগরিকসহ ছয়জন বিদেশী প্রকৌশলী কাজ করেন। তারা সবাই জামালপুর জেলার মেলান্দহ উপজেলার মালঞ্চ এলাকায় ইউনাইটেড ট্রাস্টের ক্যাম্পাসে আবাসিক বসবাস করেন। ওই প্রকৌশলীদের মধ্যে জুহা কেলেভি ১৯ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আকস্মিক বুকে খুব ব্যথা অনুভব করছিলেন। একপর্যায়ে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়লে ইউনাইটেড ট্রাস্টের এলাকা সমন্বয়কারী মো. সিব্বির আহমেদ চিকিৎসার জন্য তাকে সকাল ৯টার দিকে জামালপুর সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান। হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার বিপ্লব কুমার পোদ্দার ও আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডাক্তার মো. শফিকুজ্জামান গুরুতর অসুস্থ জুহা কেলেভির ইসিজি করাসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। একপর্যায়ে তাঁর অবস্থা আরো অবনতি হলে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মারা যান।

তাঁর মৃত্যুর খবর পেয়ে ইউনাইডেট বিদ্যুৎ উৎপাদন প্লান্টের বিদেশী অন্য পাঁচজন প্রকৌশলীসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হাসপাতালে ছুটে যান। হাসপাতালে বিদেশী নাগরিকের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক মানুষ সেখানে ভিড় জমান। হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাঁর হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন। জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাছিমুল ইসলাম পুলিশ ফোর্স নিয়ে প্রকৌশলী জুহা কেলেভির মরদেহের সুরতহাল লিপিবদ্ধ করেন।

বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, ইউনাইডেট বিদ্যুৎ প্লান্ট কর্তৃপক্ষ ও সদর থানা পুলিশের উপস্থিতিতে প্রকৌশলী জুহা কেলেভির মৃত্যুর সনদসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রে সবার স্বাক্ষর নিয়ে তাঁর সহকর্মী দক্ষিণ আফ্রিকান নাগরিক প্রকৌশলী রাইমো সাইলাকিভির কাছে মরদেহ বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. রিয়াজুল আলম বাংলারচিঠি ডটকমকে আরো বলেন, প্রকৌশলী জুহা কেলেভির মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় ইউনাইডেট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই হাসপাতালের হিমায়িত ঘরে মরদেহটি রাখা হবে। কোম্পানির উদ্যোগে কয়েকদিন পর সেখান থেকে জুহা কেলেভির মরদেহ ফিনল্যান্ডে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

জামালপুর সদর হাসপাতালের আরএমও ডাক্তার মো. শফিকুজ্জামান এ প্রসঙ্গে বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, বিদেশী নাগরিক জুহা কেলেভিকে সকালে যখন হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়েছিল তখন তিনি প্রায় অজ্ঞান ছিলেন। তার ব্লাড প্রেসার পাওয়া যাচ্ছিল না। ইসিজি করা হলে তাঁর মারাত্মক হার্ট অ্যাটাক ধরা পড়ে।

Views 36 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad