বাংলাদেশ এখন ভারত-সিঙ্গাপুরের মতোই উন্নয়নশীল দেশ : মির্জা আজম

নির্বাচনী জনসভায় প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

মমিনুল ইসলাম কিসমত, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠি ডটকম

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এবং বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বলেছেন, ‘বাংলাদেশ এক সময় ভিক্ষুকের দেশ ছিল। তলাবিহীন ঝুড়ি ছিল। এখন ভিক্ষুকমুক্ত। শেখ হাসিনা কথা দিয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্ষুধামুক্ত হবে। তিনি কথা রেখেছেন। এ দেশ এখন ভারত-সিঙ্গাপুরের মতোই উন্নয়নশীল। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষ সুখে থাকে, শান্তিতে ঘুমায়। বাংলাদেশকে ইউরোপ-আমেরিকার মতো করে গড়ে তোলা শেখ হাসিনার জন্য এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।’

২৬ ডিসেম্বর রাতে জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী) আসনের আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চিকিৎসক মুরাদ হাসানের পক্ষে সরিষাবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা আজম আরো বলেন, ‘আগে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক পাওয়া যেতো না। তাই চুর-চুরনী ঢুকতো। এখন গ্রামাঞ্চলের হাসপাতালগুলোতেও অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের সেবা পাওয়া যায়। তাই উন্নয়নের ধারা ও পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আওয়ামী লীগকে পুনরায় ক্ষমতায় আনতে হবে।’

স্থানীয় সংসদ সদস্য প্রার্থী সর্ম্পকে তিনি বলেন, ‘ডা. মুরাদ আমার ভাই। সে এমপি নির্বাচিত হলে এ এলাকার উন্নয়নের দায়িত্ব আমার। সরিষাবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনটি আধুনিকায়ন, বাইপাস নির্মাণ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ১০০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে ঢাকা পর্যন্ত নতুন দুটি আন্তঃনগর ট্রেন চালু, বন্ধ জুটমিলগুলো চালু ও পাটশিল্পের বিকাশ ঘটানো হবে।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে নির্বাচনী জনসভায় এ আসনের প্রার্থী চিকিৎসক মুরাদ হাসান তার বক্তব্যে জনসভায় আগত জনতার উদ্দেশে নৌকায় ভোট দিয়ে তাকে বিজয়ী করার নিবেদন জানান। একই সাথে তিনি নির্বাচিত হলে সরিষাবাড়ীর উন্নয়ন ও জনসেবায় সার্বক্ষণিক পাশে থাকার অঙ্গিকার করেন।

জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, সহসভাপতি আইনজীবী আমান উল্লাহ আকাশ, আইনজীবী মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সালেহ সফিক গেন্দা, সাংগঠনিক সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন ছানু, জেলা পরিষদ সদস্য ফতেহ লোহানী, মাদারগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মির্জা গোলাম কিবরিয়া কবীর, সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ হারুন-অর-রশিদ, সহসভাপতি মনির উদ্দিন, সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ বিন জালাল প্লাবন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক অধিনায়ক মোফাজ্জল হোসেন, পোগলদিঘা ইউপি চেয়ারম্যান সামস উদ্দিন, যুবলীগের সভাপতি এ কে এম আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।

  ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad