‘কাদেরের শরীরে ইনফেকশন, সমস্যা কিডনিতেও’

বাংলারচিঠি ডটকম ডেস্ক : ‘গুরুতর অসুস্থ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শরীরে ইনফেকশনও (সংক্রমণ) রয়েছে। এ ছাড়া তার কিডনিতেও সমস্যা ধরা পড়েছে।’

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

৫ মার্চ সকালে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ৪ মার্চ রাতে হাসপাতালে পৌঁছানোর পরপরই সেখানকার চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা শুরু হয়। কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। তার শরীরে কিছু ইনফেকশন ও কিডনির সমস্যা পাওয়া গেছে। তবে ডায়ালাইসিসের প্রয়োজন নেই।

পরীক্ষা-নিরীক্ষাগুলোর প্রতিবেদন দুপুরের পর পাওয়া যাবে জানিয়ে বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, প্রতিবেদন পাওয়ার পর ওবায়দুল কাদেরের পরবর্তী চিকিৎসা শুরু হবে। তবে তার অবস্থা আগের তুলনায় কিছুটা ভালো বলেও জানান তিনি।

৪ মার্চ বিকেল সোয়া ৪টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজোবেথ হাসপাতালের একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদেরক নিয়ে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

বাংলাদেশ সময় রাত ৭টা ৫০ এ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি সিঙ্গাপুরে পৌঁছায়। পরে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ওবায়দুল কাদেরকে মাউন্ট এলিজোবেথ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে আইসিউতে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের ডা. ফিলিপ কো’র তত্ত্বাবধানে আওয়ামী লীগের এ সাধারণ সম্পাদকের স্বাস্থ্যগত নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

স্ত্রী ইশরাতুন্নেসা কাদের এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. আবু নাসের রিজভী সিঙ্গাপুরে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে রয়েছেন।

ঢাকা থেকে সিঙ্গাপুরের পথে কাদেরকে দেখভাল করার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ছিলেন মাউন্ট এলিজোবেথ হাসপাতালের দুজন চিকিৎসক, একজন নার্স ও একজন টেকনিশিয়ান। রোববার সন্ধ্যায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গেই ঢাকায় এসেছিলেন তারা।

ডা. আবু নাসের রিজভী জানান, পথে কোনো সমস্যা ছাড়াই বাংলাদেশ সময় ৪ মার্চ রাত ৮টার দিকে ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি সিঙ্গাপুরে পৌঁছায়। এরপর একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পুরোটা সময় ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ছিল। রক্তচাপ ছিল ১৩৫/৭৮। হাসপাতালে নিয়ে তাকে ৩০০৮ নম্বর আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। ওবায়দুল কাদেরের অবস্থা বাংলাদেশে থাকাকালীন অবস্থার চেয়ে ভালো বলেও জানান এ চিকিৎসক।
সূত্র : ডেইলি বাংলাদেশ

Views 23 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad