হুইপ আতিকের বিরুদ্ধে নীল নকশার অভিযোগ প্রিয়াঙ্কার

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী চিকিৎসক সানসিলা জেবরিন প্রিয়াঙ্কা। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

সুজন সেন
নিজস্ব প্রতিবেদক, শেরপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

শেরপুর-১ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হুইপ আতিউর রহমান আতিকের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচার কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগ তুলেছেন একই আসনের বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী চিকিৎসক সানসিলা জেবরিন প্রিয়াঙ্কা। ১৮ ডিসেম্বর দুপুরে শহরের মাধবপুরে তার নির্বাচনী কার্যালয়ে এক সংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় প্রিয়াঙ্কার মা ও জেলা বিএনপি এবং এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রিয়াঙ্কা বলেন, শাসক দলের প্রার্থী হুইপ আতিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এলাকায় অসমতল পরিবেশ সৃষ্টি করে রেখেছেন। তিনি একটি নীল নকশার ইলেকশনের পাঁয়তারা করছেন। তার প্রত্যক্ষ নির্দেশে সদর উপজেলার ধলা, কামারিয়া এবং ভাতশালা ইউনিয়নসহ আরো কিছু ইউনিয়নে আমাদের দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করে নির্বাচনী কাজে বাধার সৃষ্টি করা হচ্ছে।

লিখিত বক্তব্যে প্রিয়াঙ্কা অভিযোগ করে বলেন, ধানের শীষের জোয়ার দেখে হুইপের প্রত্যক্ষ মদদে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা আমাদের কয়েকটি নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্র ভাংচুর করে।

প্রিয়াঙ্কা পুলিশ প্রশাসনের দিকে অভিযোগের তীর ছুঁড়ে বলেন, এ আসনে বিএনপি দীর্ঘ ২২ বছর পর ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী পাওয়ায় স্থানীয় ভোটাররা এবার উজ্জীবিত হয়ে উঠেছেন ওই প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য। তাই স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন এ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে আমাদের মাঠে নামতে দিচ্ছে না। প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে আমাদের অসংখ্য নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া সার্বক্ষনিক ডিবি (গোয়েন্দা) পুলিশ তার বাড়ির আশপাশ ঘিরে রেখেছে। এবং নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের ভয় দেখানো হচ্ছে। শুধু তাই না টেলিফোনেও নানা রকমের হুমকি ধামকি দেয় পুলিশ। তার এলাকার নির্বাচনী ক্যাম্পটিতে পুলিশের হয়রানীর কারণে দলীয় পোষ্টার সাঁটাতে পারছেন না এবং এ ক্যাম্পটি গত চারদিন যাবত বন্ধ রাখা হয়েছে বলেও জানায় প্রিয়াঙ্কা।

ধানের শীষের এই প্রার্থী বলেন, তার বাবা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী দলের মূল প্রার্থী থাকলেও তাকে প্রায় সাড়ে তিন মাস যাবত বিভিন্ন গায়েবি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে। তাই বাবার বদলে দল থেকে আমাকে এ আসনের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

  ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad