নকলায় ভুট্টার বাম্পার ফলনের আশা কৃষকদের

অন্যান্য ফসলের তুলনায় লাভজনক হওয়ায় ভুট্টা চাষে ঝুঁকে পড়েছেন নকলার কৃষকরা। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

শফিউল আলম লাভলু, নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠি ডটকম

শেরপুরের নকলা উপজেলায় ভুট্টার বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করে চলতি রবি মৌসুমে ভুট্টার রেকর্ড পরিমাণ চাষ হয়েছে। অন্যান্য ফসলের তুলনায় লাভজনক হওয়ায় ভুট্টা চাষে ঝুঁকে পড়েছেন এখানকার কৃষকরা। তাই এবার বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছেন স্থানীয় কৃষকরা। কৃষিবিদরা বলছেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে গত বছরের তুলনায় এবার ভালো ফলন হবে। প্রতি বছরই ধানের দরপতনের কারণেই কৃষকদের লোকসান গুনতে হচ্ছে। ভুট্টা চাষে সার কম লাগে। এছাড়া, সেচ, কীটনাশক ও নিড়ানি লাগে না। একেবারে কম খরচে ও স্বল্প সময়ে এ ফসল ঘরে তোলা যায়। বর্তমান বাজারে চাহিদা ও দাম দুটোই ভালো রয়েছে। তাই ভুট্টা অল্প খরচে লাভজনক হওয়ায়, বিকল্প হিসেবে অন্য ফসলের পাশাপাশি ভুট্টা চাষের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, গেল বছর এ উপজেলায় ৬২০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা আবাদ হয়েছিল। কৃষি প্রণোদনা দেওয়ায় এবারে চলতি মৌসুমে ৯৫০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হয়েছে।

উপজেলার বন্দটেকি গ্রামের মোকসেদ আলী বলেন, গত বছর ৫০ শতাংশ জমিতে ভুট্টার চাষ করেছিলাম। এবার ৮২ শতাংশ জমিতে আগাম জাতের ভুট্টা চাষ করেছি। ফলনও খুব ভাল হইছে। যদি আবহাওয়া ও দাম ভাল থাকে তাহলে গলে বছরের তুলনা এবার দিগুন লাভ হতে পারে বলে আসা করছি।

ভুট্টাচাষী শিরিন আক্তার বলেন, প্রতি একরে ১০/১২ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রায় ১০০ মণ ভুট্টা পাওয়া যায়। প্রতিমণ ভুট্টা আমরা ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা দরে বিক্রি করতে পারি। ভুট্টা চাষে কোনো ক্ষতি নেই শুধুই লাভ। ভুট্টা গাছের পাতা গো-খাদ্য এবং ভুট্টা গাছ লাকড়ি হিসেবে আমরা রান্নার কাজে ব্যবহার করতে পারি।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন জানান, কম খরচে বেশি লাভের আশায় কৃষকরা এবার বোরো ধানের জমিতে আগাম জাতের ও অধিক ফলনশীল পুষ্টি সমৃদ্ধ দানাদার জাতীয় ভুট্টা চাষ করছেন। এছাড়াও ভুট্টার রোগবালাই দমনে মাঠপর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তারা চাষিদের নানা পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ পরেশ চন্দ্র দাস বলেন, নকলা উপজেলায় এ বছর ১ হাজার ৩০০ কৃষকের মাঝে প্রণোদনা হিসেবে ভুট্টা বীজ ও সার দেওয়ায় ভুট্টা চাষের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে। কম খরচে বেশি লাভের আশায় কৃষকরা এবার বোরো ধানের জমিতে আগাম জাতের ও অধিক ফলনশীল পুষ্টি সমৃদ্ধ দানাদার জাতীয় ভুট্টা চাষ করছেন। বাজারে ভালো দাম ও চাহিদা রয়েছে। জমিতে রোগবালাই দমনের জন্য মাঠপর্যায়ে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা নানা পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

Views 23 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad