শরিফপুরে বালু উত্তোলনকারী দু’জনের কারাদণ্ড

ব্রহ্মপুত্র নদে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুর সদরের শরিফপুর ইউনিয়নের জয়রামপুর তালতলা এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারী এক বালুব্যবসায়ী ও তার এক শ্রমিককে কারাদণ্ড, ড্রেজার মেশিন, লোহার পাইপ ও ড্রাম জব্দ, শ্যালোমেশিন ধংস এবং বিপুল পরিমাণ বালু জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ২৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে এ অভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, ব্রহ্মপুত্র নদসহ বিভিন্ন নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী হাকিম মো. ইমরানুল হক, ইবনুল আবেদীন ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এস এম মাজহারুল ইসলাম পুলিশ নিয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে দুপুরে সদর উপজেলার শরিফপুর ইউনিয়নের জয়রামপুর তালতলা এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদে অভিযান চালান।

এ সময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ব্যবসার মালিক মো. আহসানুল ইসলাম রুবেল ও তার শ্রমিক মো. রফিকুল ইসলামকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের রায়ে ২০১০ সালের বালু মাটি ব্যবস্থাপনা আইনের ৪(১৫) এর ১ ধারায় মো. আহসানুল ইসলামকে ছয় মাসের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত মো. আহসানুল ইসলাম সদরের রানাগাছা ইউনিয়নের নান্দিনা বাজার এলাকার মৃত রুস্তম আলীর ছেলে। তার শ্রমিক সদরের লক্ষ্মীরচর ইউনিয়নের রায়েরচর মোল্লাপাড়া গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে মো. রফিকুল ইসলামকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অভিযানের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের দল বালু উত্তোলনের তিনটি ড্রেজার মেশিন, ৪১টি লোহার পাইপ ও ১২টি ড্রাম জব্দ এবং নৌকায় রাখা দুটি শ্যালো মেশিন পুড়িয়ে ধংস করা হয়। এ ছাড়াও অবৈধভাবে উত্তোলন করে নদের পাড়ে মজুদ করে রাখা নয় লাখ ১০ হাজার ঘনফুট বালু জব্দ করা হয়েছে।

জামালপুর সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এস এম মাজহারুল ইসলাম অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Views 25 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad