ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী গুরুতর অসুস্থ, ঢাকায় ইউনাইটেডে ভর্তি

জামালপুর জিলা স্কুল মাঠ থেকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয় ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীকে। ছবি : মাহমুদুল হাসান মুক্তা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী গুরুতর অসুস্থ হয়েছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে তাকে একটি বেসরকারি হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের একজন দায়িত্বশীল নেতা জানিয়েছেন, ঢাকায় তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।

পারিবারিক ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৪ সেপ্টেম্বর বেলা ১২টার দিকে জামালপুর শহরের বানাকুড়া এলাকায় নিজ বাসভবনে আকস্মিক গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী। তিনি বুকে এবং হৃদযন্ত্রে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব করছিলেন। বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে তাকে দ্রুত জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক চিকিৎসক প্রফুল্ল কুমার সাহার নেতৃত্বে কয়েকজন চিকিৎসক তার ইসিজি পরীক্ষা ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি হওয়ায় দ্রুত তাকে জরুরি উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল থেকে ঢাকায় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে রেফার্ড করা হয়।

পরে তাকে দুপুর আড়াইটার দিকে একটি হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জামালপুর জিলা স্কুলে মাঠে তাকে হেলিকপ্টারে উঠানোর সময় জামালপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক, জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং জেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তাকে দেখতে বিপুল সংখ্যক সাধারণ লোকজনও সেখানে ভিড় করেন।

এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ছানোয়ার হোসেন ছানু বাংলারচিঠিডটকমকে জানান, হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। তার সুস্থতা কামনায় তিনি সকলের দোয়া চেয়েছেন।

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. প্রফুল্ল কুমার সাহা বাংলারচিঠিডটকমকে বলেন, ‘বুকে ও হৃদযন্ত্রে প্রচন্ড ব্যথায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীকে হাসপাতালে আনার সাথে সাথে ইসিজি ও প্রেসার মেপে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। আমাদের কাছে মনে হয়েছে তার হার্টের জরুরি উন্নত চিকিৎসা দরকার। তাই তাকে ঢাকায় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে রেফার্ড করা হয়েছে। চাইলে তারা ঢাকায় উন্নত সুযোগসুবিধা সম্পন্ন যেকোনো হাসপাতালে তাকে ভর্তি করাতে পারবেন।’

sarkar furniture Ad
Green House Ad