নরসিংদীতে সেপটিক ট্যাংকে নেমে তিন শ্রমিকের মৃত্যু

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
নরসিংদীর সদর উপজেলায় নির্মাণাধীন বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে নেমে তিন শ্রমিক মারা গেছে। এতে অসুস্থ হয়েছে আরও একজন। ৬ আগস্ট দুপুরে শহরের বিলাসদী ব্যাংক কলোনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন রাকিব, সিরাজুল ও জমির। এদের মধ্যে একজনের বাড়ি নেত্রকোণা বলে জানা গেলেও বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও দমকল বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন আগে সেপটিক ট্যাংকের ছাদের ডালাই দেওয়া হয়। ৬ আগস্ট দুপুরে ট্যাংকের ভেতরে কাঠ ও বাশ খুলার জন্য রমিজ ভেতরে প্রবেশ করে। বেশ কিছুক্ষণ হয়ে গেলেও তার কোন সাড়া শব্দ নেই। পরে রাকিব নামে আরো এক শ্রমিককে পাঠানো হয়। যাওয়ার পর তারও কোন সাড়া শব্দ নেই। সর্বশেষ বাড়ির ঠিকাদার সিরাজ সেখানে যায়। তিন জনের কারোই কোনো সারা শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। এরপর আরো এক শ্রমিক ভেতরে মাথা দিয়ে দেখতে গেলে সেও অসুস্থ হয়ে যায়। পরে দমকল বাহিনী খবর দেয়া হয়। কিন্তু ট্যাংকের সরু মুখ ও অন্ধকারের কারনে ভেতরে আটকে পড়াদের উদ্ধার করা যাচ্ছিল না। পরে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ট্যাংকের ছাদ ভেঙে চারজনকে উদ্ধার করে। তাদেরকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স এর উপসহকারী পরিচালক শফিকুর ইসলাম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নির্মানাধীন বন্ধ ট্যাংকটিতে প্রচুর মিথেনাইল গ্যাস হয়ে গিয়েছিল। তাই তারা ভেতরে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা চিকিৎসক এম এন মিজানুর রহমান বলেন, হাসপাতালে আনার পর তিনজনকে মৃত হিসেবে পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে অক্সিজেনের অভাব ও বিষাক্ত গ্যাসের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।
সূত্র : ডেইলি বাংলাদেশ ডটকম

Views 38   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad