বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি জামালপুর জেলা শাখার মানববন্ধন। ছবি : মাহমুদুল হাসান মুক্তা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

কুষ্টিয়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি জামালপুর জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭ ডিসেম্বর বিকেলে জামালপুর শহরের দয়াময়ী মোড়ে শেখ হাসিনা সাংস্কৃতিক পল্লীর সামনে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি জেলা শাখার আহ্বায়ক মুক্তা আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, সহ-সভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানা, সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জামান আকন্দ বাবু, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক নাঈম রহমান, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ-৭১ জেলা শাখার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ, পৌর কাউন্সিলর রাজিব সিংহ সাহা, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সৈয়দ তানভির আহাম্মেদ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি জেলা শাখার সদস্য সচিব মো. হাফিজুর রহমান আকবর ও সদস্য আবৃত্তিকার রবিউল ইসলাম রাসেল, শহর শাখার আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড জেলা শাখার সভাপতি মাফিজুল আলম মুক্তা প্রমুখ।

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, ধর্মের পবিত্রতা রক্ষার জন্য ধর্মের নামে সন্ত্রাসের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে। স্বাধীনতাবিরোধী, মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ভাস্কর্য ভাংচুর করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মর্যাদা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর আঘাত হেনেছে। ভাস্কর্য ভাংচুর করে তারা দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির পায়তারা করছে। তাদেরকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বিভিন্ন সংগঠনের সংগঠক, সদস্যসহ বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার বিপুল সংখ্যক মানুষ এ কর্মসূচিতে অংশ নেন।

sarkar furniture Ad
Green House Ad