শহীদনগর ও জাফরশাহী রেল স্টেশন চালু করার দাবি

সরিষাবাড়ীতে শহীদনগর স্টেশনের কার্যক্রম চালুর দাবিতে রেলপথ অবরোধ করে মানববন্ধন।ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের জাফরশাহী ও পিংনা ইউনিয়নের বারইপটল শহীদনগর রেলওয়ে স্টেশন অবরোধ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শহীদনগর স্টেশনের কার্যক্রম চালু ও আন্তঃনগর ট্রেন বিরতি এবং জাফরশাহীকে বি-গ্রেড স্টেশনে উন্নীতকরণের দাবিতে ৮ অক্টোবর দুপুরে ও বিকেলে স্থানীয়রা পৃথকভাবে এ কর্মসূচি পালন করে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, স্পেশাল ট্রেনে বাংলাদেশ রেলওয়ের ডিভিশনাল কমার্শিয়াল অফিসার সৈকত জামান মহসিন, সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম ও পরিদর্শক অসীম কুমার তালুকদারসহ রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব)-জামালপুর রেলরুটে আগমন করেন। এ খবর শুনে ৮ অক্টোবর দুপুরে এলাকাবাসী বারইপটল শহীদনগর রেলওয়ে স্টেশন অবরোধ ও মানববন্ধন পালন শুরু করে। এসময় কর্মকর্তারা যাত্রা বিরতি করে তাদের দাবি-দাওয়া শুনেন। স্থানীয়রা এই স্টেশন চালু, আন্তঃনগর ট্রেন বিরতি ও জামালপুর এক্সপ্রেস ট্রেনে ৫০টি আসন বরাদ্দের দাবীতে স্মারকলিপি দেন।

এসময় বক্তব্য রাখেন পিংনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শামছুল হক সমু, মুক্তিযোদ্ধা ইন্তাজ আলী, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

জাফরশাহী রেলওয়ে স্টেশনে অবরোধ।ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

অপরদিকে জাফরশাহী রেলওয়ে স্টেশন চালু, বি-গ্রেডে উন্নীতকরণ ও সকল ট্রেন যাত্রাবিরতির দাবিতে বিকেলে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে এলাকাবাসী। এসময় বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, আইনজীবী রেজা ভানু, ভাটারা বাজার বণিক সমিতির সভাপতি রমজান আলী প্রমুখ।

তারা প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি লিখিত আবেদনপত্র তুলে দেন।

এ ব্যাপারে পরিদর্শন টিমে আসা বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিদর্শক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, লিখিত আবেদনটি সুপারিশসহ মন্ত্রণালয়ে পেশ করবো। আমাদের করার কিছু নেই, স্থানীয়রা যোগাযোগ করলে এটা মন্ত্রণালয় দেখবে।

সরিষাবাড়ী রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার আব্দুর রাজ্জাক এ প্রতিবেদককে জানান, সরিষাবাড়ী উপজেলার জাফরশাহী, বাউসি, বয়ড়া, শহীদনগর ও হেমনগর রেলওয়ে স্টেশন তিন বছর ধরে বন্ধ। রেলওয়ের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বিশেষ ট্রেনে রেলপথ পরিদর্শনে আসেন।

Views 48 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad