বকশীগঞ্জে কৃষক খুনের ঘটনায় আটক ২, থানায় মামলা

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় ছমর আলী (৬৫) নামের একজন কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দু’জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। ১৯ জানুয়ারি রাতে উপজেলার সাধুরপাড়া ইউনিয়নের বাঙ্গালপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ২০ জানুয়ারি বকশীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাঙ্গালপাড়া গ্রামের মৃত ছাদেক আলীর ছেলে ছমর আলী ও তার ছেলে নূর হোসেন স্থানীয় কামালেরবার্তী গ্রাম থেকে ১৯ জানুয়ারি রাতে ফেরার পথে দশানী নদীর পাড়ে অজ্ঞাত এক দল দুর্বৃত্ত তাদের ওপর হামলা চালায়। দুর্বৃত্তরা কৃষক ছমর আলীকে উপর্যুপরি কুপিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। ঘটনাস্থলেই ছমর আলী মারা যান। দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত নূর হোসেনকে রাতেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে রাতেই বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ ছমর আলীর মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় রাতেই দেওয়ানগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাক সরকার, বকশীগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মাহবুব আলম, সাধুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

কৃষক ছমর আলীর পরিবারের অভিযোগ, প্রতিবেশী সাহাজল হকের সঙ্গে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে তারাই হয়তো ছমর আলীকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। তবে এ ঘটনার পর থেকে সাহাজল হক ও তার লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। কৃষক হত্যার ঘটনায় রাতেই বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ সাহাজল হকের আত্মীয় ফকির আলী ও শাহজাহান আলীকে আটক করেছে।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মাহবুব আলম বাংলারচিঠি ডটকমকে বলেন, এ ঘটনায় নিহত কৃষকের ছেলে আমির আলী বাদী প্রতিপক্ষ সাহাজল হক, ফকির আলী ও শাহজাহান আলীসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহত কৃষক ছমর আলীর মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ঘটনার মূলহোতা সাহাজল হকসহ জড়িত অন্যান্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Views 29 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad