সরিষাবাড়ীতে ঈদের আগের রাতে গৃহবধূ হত্যা, স্বামী পলাতক

মমিনুল ইসলাম কিসমত, সরিষাবাড়ী॥

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় ঈদের আগের রাতে বাড়ির পাশের গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় শারমীন আক্তার (২৪) নামের গার্মেন্টসকর্মী এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের কান্দারপাড়া গ্রামে ওই গৃহবধূর স্বামী জাহাঙ্গীর আলমের বাড়িতে ২১ আগস্ট দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে ওই গৃহবধূর স্বামী গার্মেন্টসকর্মী জাহাঙ্গীর আলম পলাতক রয়েছেন। নিহত শারমিন আক্তার মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার উত্তর বিদ্যানন্দী গ্রামের আফজাল মাতব্বরের মেয়ে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর ধারণা ওই গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বাড়ির পাশের একটি গাছে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়। পুলিশ ২২ আগস্ট দিবাগত গভীর রাতে ঈদের দিন সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। একই সাথে পুলিশ মাদারীপুর জেলার রাজর থানার মাধ্যমে ওই গৃহবধূর স্বজনদের কাছে সংবাদ পাঠিয়েছে। পলাতক স্বামী জাহাঙ্গীর আলম সরিষাবাড়ী উপজেলার কান্দারপাড়া গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার উত্তর বিদ্যানন্দী গ্রামের আফজাল মাতব্বরের মেয়ে শারমিন আক্তার গাজীপুরের কালিয়াকৈরে একটি গার্মেন্টেসে চাকরি করতেন। সে সুবাদে গার্মেন্টসকর্মী সরিষাবাড়ী উপজেলার কান্দারপাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ২০১২ সালে বিয়ের পর তাদের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। ঈদুল আযহার ছুটিতে গত ১৯ আগস্ট দিবাগত গভীর রাতে তারা সপরিবারে সরিষাবাড়ীতে আসেন।

অভিযোগ রয়েছে, দাম্পত্য কলহের জের ধরে ২১ আগস্ট দিবাগত রাত ৩টার দিকে জাহাঙ্গীর আলম তার স্ত্রী শারমিন আক্তারকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে তার লাশ বাড়ির পাশে একটি গাছে ঝুলিয়ে রেখে রাতেই জাহাঙ্গীর আলম তার মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যান।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তারাকান্দি তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক জোয়াহের আজম খান জানান, ২২ আগস্ট ঈদের দিন সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাজেদুর রহমান ২২ আগস্ট বুধবার রাত পৌনে ১০টায় বাংলার চিঠি ডটকমকে বলেন, দাম্পত্য কলহের জের ধরে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ওই গৃহবধূর স্বামী জাহাঙ্গীর আলমকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ ছাড়া মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার মাধ্যমে নিহত গৃহবধূর স্বজনদের কাছে এ ঘটনার সংবাদ পাঠানো হয়েছে। তারা এখনো আসেনি। এলে এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে।

Views 36   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad