তারেক রহমানের যাকাত-ফিতরার টাকা মেরে দিল রিজভী গং

rizviবাংলারচিঠি অনলাইন ডেস্ক॥
ঈদ উপলক্ষ্যে সেমাই-চিনি ও শাড়ি-কাপড় কিনতে এবার তারেক রহমানের যাকাত-ফিতরার টাকায় ভাগ বসাচ্ছেন বিএনপির নেতারা। সূত্রের খবরে জানা গেছে, রিজভী আহমেদ, মওদুদ আহমেদ, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মেজর (অব) হাফিজের মত জ্যেষ্ঠ নেতাদের মাধ্যমে তৃণমূল বিএনপি ও মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যাকাত-ফিতরার টাকা তারেক রহমানের কাছে পাঠানোর জন্য জমা দেন। কিন্তু সেই যাকাত-ফিতরার টাকাতেও দুর্নীতি করছেন জ্যেষ্ঠ নেতারা। বিভিন্ন সংখ্যায় জমাকৃত ৫ কোটি টাকার মধ্যে মাত্র ২ কোটি টাকা লন্ডনে পৌছালে শুরু হয়ে যায় হট্টগোল। নেতাদের দুর্নীতিতে বেজায় ক্ষেপেছেন তারেক রহমান। নেতাদের কঠিনভাবে সাইজ করারও হুমকি দিয়েছেন তারেক।

নয়াপল্টন সূত্রে জানা গেছে, রমজান শুরুর আগেই সিটি করপোরেশন ও আগামী সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাসীদের থোড়া পয়সা পাঠানোর জন্য বিশেষ হুকুম দিয়েছিলেন তারেক রহমান। লন্ডনের মত জায়গায় ধান্দাপানি নাই বললেই চলে। ক্ষমতা না থাকলেও তো তারেক রহমান সাধারণ গরীব মানুষের মত ঈদ করতে পারেন না। তাছাড়া ঈদের রাতেই তো বারে দিতে হবে কয়েক হাজার ডলারের বিল। মদ খেয়ে টুন না হলে তো ঈদের মজা পান না তারেক রহমান। তাই সব মিলিয়ে ঈদের বখরা পাঠানোর জন্য প্রতিদিন ফোন করে করে জ্যেষ্ঠ নেতাদের মাথা নষ্ট করে ফেলেছেন তারেক রহমান।

বিএনপির একটি সূত্রে জানা গেছে, তারেক রহমানের কড়া নির্দেশ পালন করতেই ইতোমধ্যে তৃণমূল বিএনপি, চামড়া ব্যবসায়ী দল, হকার্স দল ও মনোনয়ন প্রত্যাসীরা সব মিলিয়ে ৫ কোটি টাকা তুলে দেন জ্যেষ্ঠ নেতাদের হাতে। কিন্তু ভেজাল লাগে বিতরণকালে। ওই জ্যেষ্ঠ নেতারা রিজভী আহমেদের নেতৃত্বে কয়েকটি গোপন বৈঠক করে তারেককে ২ কোটি টাকা পাঠিয়ে অবশিষ্ট ৩ কোটি টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নেন। রিজভী বলেন, শুনেন ভাইরা। আমরাই বিএনপিকে টিকিয়ে রাখছি। আমি রিজভী না থাকলে বিএনপি এতদিন মরেই যেত। আমরা পুলিশের মার খাই। আন্দোলনে আমাদের কাপড় ছিঁড়ে, জুতার ফিতা ছিঁড়ে যায়। আমরা জেল খাটি। নিজের গাটের পয়সা খরচ করে, দেনদরবার করে জামিন নিতে হয়। আর লন্ডনে বসে সাহেবী করেন তারেক। আরে ভাই, ঈদ-পর্ব তো আমাদেরও আছে নাকি! বছরের পর বছর এক কাপড় ও একটা খদ্দরের চাদর দিয়ে পার করছি। সারা বছর কোনো মাইনে পাই না। পয়সা কামাইয়ে মৌসুম হল এখন। তারেক রহমানের পরিবারের সদস্য হাতে গোনা কয়জন? তাদের এত টাকা দিয়ে কি হবে? রিজভীর এমন বক্তব্যে সুর মিলিয়ে উপস্থিত জ্যেষ্ঠ নেতারা চেঁচিয়ে বলেন, কথা ঠিক, কথা ঠিক। হক কথা বলেছেন রিজভী সাহেব।
সূত্র : বাংলা নিউজ পোস্ট।