রাজনীতি কোন ব্যবসা নয়, এই মনোবৃত্তি থেকে বের হয়ে আসতে হবে : ফজলে শামস পরশ

বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। ছবি : আলী আকবর

জাহিদুর রহমান উজ্জল, মাদারগঞ্জ প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ মাদারগঞ্জ উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বালিজুড়ী এফ এম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সকাল ১০টায় এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। তিনি বলেন, ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে আমার প্রয়াত পিতা শেখ ফজলুল হক মনি এই যুবলীগের হাল ধরে ছিলেন। তার হাতে গড়া সংগঠনের হাল ধরেন নানক ও মির্জা আজম। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে সারাদেশে শক্তিশালি অবস্থান তৈরি করেছে যুবলীগ।

তিনি আরো বলেন, এক বছর আগে নভেম্বরে এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মধ্য দিয়ে আমাকে ও নিখিলকে যুবলীগের দায়িত্ব দেওয়া হয়। করোনাকালে যুবলীগ মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়ে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুবলীগে শুদ্ধি অভিযান করে যাচ্ছেন। এই অভিযানে যুবলীগকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি বলেন, রাজনীতি কোন ব্যবসা নয়, এই মনোবৃত্তি থেকে বের হয়ে আসতে হবে। যারা রাজনীতি করেন তাদের অনেক ত্যাগ।

সম্মেলনের উদ্বোধক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সস্পাদক মির্জা আজম এমপি তার বক্তব্যে বলেন, এক সময় জিয়া-মোস্তাক ষড়যন্ত্র করেছিল। সেই ষড়যন্ত্র থেমে নেই। বর্তমানে বেগম খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমান কিছু যুদ্ধাপরাধী রাজাকারের ছেলেদের দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। কিছু নামধারী মোল্লাদের মনগড়া ফতুয়া দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনে বাধা দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, ফতুয়াবাজরা বলছেন, এই ভাস্কর্য নাকি বঙ্গবন্ধুকে জাহান্নামে নিয়ে যাবে।

মির্জা আজম আরো বলেন, সৌদি আরব, পাকিস্তানসহ অনেক মুসলিম দেশে ভাস্কর্য রয়েছে। অথচ সেই সব দেশে কোন সংগ্রাম নাই।

মাদারগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।ছবি : আলী আকবর

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন- যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, সহসভাপতি আশরাফ হোসেন তরফদার ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী, জেলা যুবলীগ সভাপতি রাজন সাহা রাজু ও সাধারণ সম্পাদক ফারহান আহমেদ, মাদারগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জীবন কৃষ্ণ সাহা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান বেলাল, জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, মাদারগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মির্জা গোলাম কিবরিয়া কবির, জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সাবিনা ইয়াসমিন প্রমুখ।

দ্বিতীয় অধিবেশনে মাদারগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. ফরিদুল ইসলামকে সভাপতি ও মো. শফিকুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়।

Views 303 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad