মোটরসাইকেল থেকে পড়ে প্রাণ গেল মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগমের

জামালপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা গ্রহণ শেষে অফিসে ফেরার পথে মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন জামালপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম (৫৩)। ২৫ নভেম্বর বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে জামালপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, জামালপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম ২৫ নভেম্বর দুপুরে সদরের নান্দিনায় একটি বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা নিতে যান। কাজ শেষে বিকেলে তার কার্যালয়ের একাডেমিক সুপারভাইজার মো. হায়দার আলী তাকে পেছনে বসিয়ে মোটরসাইকেলে অফিসে ফিরছিলেন। পথে বিকেল ৪টার দিকে ময়মনসিংহ-জামালপুর সড়কের শরিফপুর বগালি এলাকায় চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে আকস্মিক পড়ে যান আফরোজা বেগম। এতে তিনি মাথায় গুরুতর আঘাত পান। স্থানীয়রা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে দ্রুত জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি মারা যান।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম বিগত প্রায় পাঁচ বছর ধরে জামালপুর সদরে কর্মরত ছিলেন। তার স্বামী মো. মজিবর রহমান ঢাকায় ব্যবসা করেন। তাদের দুই মেয়ে প্রিয়ন্ত ও প্রিয়তি ঢাকায় স্নাতক পর্যায়ে পড়ালেখা করেন। জামালপুর শহরের বজরাপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে তিনি জামালপুরে চাকরি করে আসছিলেন। সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে মৃত্যুবরণকারী এই শিক্ষা কর্মকর্তাকে একনজর দেখতে এবং পরিবারের স্বজনদের সমবেদনা জানাতে জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা হাসপাতালে ছুটে যান।

জামালপুর জেলা ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মনিরা মুস্তারি ইভা এ প্রতিবেদককে বলেন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগমের বাড়ি গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলায়। ঢাকায় খিলগাঁয়ে তাদের নিজস্ব বাসা রয়েছে। রাতে জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে স্বজনরা তাকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে দাফন করার কথা রয়েছে।

Views 437 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad