বকশীগঞ্জে বিকেন্দ্রীকৃত পরিবীক্ষণ, পরিদর্শন ও মূল্যায়ন পদ্ধতি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

বিকেন্দ্রীকৃত পরিবীক্ষণ, পরিদর্শন ও মূল্যায়ন পদ্ধতি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

স্থানীয় সরকার বিভাগের বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় উপজেলা পর্যায়ে বিকেন্দ্রীকৃত পরিবীক্ষণ, পরিদর্শন ও মূল্যায়ন (ডিএমআইই) পদ্ধতি বিষয়ক প্রশিক্ষণ ১৭ নভেম্বর দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং ইউরোপিয় ইউনিয়ন ও ইউএনডিপির আর্থিক সহযোগিতায় মাদারীপুর লিগ্যাল এইড অ্যাসোসিয়েশনের বাস্তবায়নে উপজেলা সম্মেলনকক্ষে ওই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুন মুন জাহান লিজা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ও বক্তব্য বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) স্নিগ্ধা দাস, ইউএনডিপির জেলা ফ্যাসিলিটেটর মালিক শামীম আখতার, প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী আবু হেনা মোস্তফা, উপজেলা সমন্বয়কারী রুবিনা বেগম, বগারচর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম লিচু, নিলক্ষিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার, সাধুরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু, ইউপি সচিব শরিয়তুজ্জামান, ইউপি সচিব বজলুল করিম, ইউপি সচিব এসএম আমিন, গ্রাম আদালত সহকারী সুমন মিয়া ও শামীম মিয়া, নরুন্নবী, সুলতানা, শিশির মিয়া প্রমুখ।

প্রশিক্ষণে ৭টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সচিব, বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রাম আদালত সহকারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

গ্রাম আদালতের মাধ্যমে গ্রামে বিরোধ নিষ্পত্তি গ্রামেই করা, ছোট-খাটো ফৌজদারী ও দেওয়ানি বিরোধ স্থানীয়ভাবে মীমাংসার জন্য বলা হয়। গ্রাম আদালতে যেতে স্থানীয় জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য জনপ্রতিনিধিদের উপর জোর তাগিদ দেওয়া হয়।

মাত্র ১০ টাকায় ফৌজদারী মামলা ও ২০ টাকায় দেওয়ানি মামলার মাধ্যমে এসব বিরোধ নিষ্পত্তি করতে পারবে গ্রাম আদালত।

sarkar furniture Ad
Green House Ad