শেরপুরে টিনের বেড়া কেটে দুই শিশু নেওয়ার চেষ্টায় আতঙ্ক, পুলিশের মাইকিং

বাবা-মায়ের কোলে শ্রাবন্তী ও সিফাত। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

সুজন সেন, নিজস্ব প্রতিবেদক, শেরপুর
বাংলারচিঠিডটকম

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলায় বসত ঘরের টিনের বেড়া কেটে দুই শিশুকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার গোশাইপুর ইউনিয়নের বালিয়াচন্ডি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ২২ জুলাই গভীর রাতে ওই ঘটনার পর ২৩ জুলাই সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ মাইকিং করে জনসাধারণকে সচেতন থাকার আহবান জানিয়েছে। এ ঘটনায় আতঙ্কে রয়েছে ওই গ্রামের লোকজন।

শিশুর বাবা শাজাহান মিয়া জানান, ২২ জুলাই রাতের খাবার শেষে তার শিশু বাচ্চা সাথী আক্তার শ্রাবন্তী (৩) ও সিফাত (২) কে নিয়ে প্রতিদিনের মতো ঘুমাতে যান। রাতে কে বা কারা বসত ঘরের পিছনের টিনের বেড়া কেটে মেয়ে শ্রাবন্তীকে বের করে নেয় এবং পরে ছেলে সিফাতকে বের করার চেষ্টা করলে ঘুম ভেঙে যায়। এ সময় সিফাতের হাত টেনে ধরে চিৎকার দিলে দুর্বৃত্তরা দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।

৭ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মতিবর রহমান মতি বলেন, ঘটনাটি ঘটার পর আমরা এলাকাবাসী বিভিন্ন জায়গায় লোকগুলোকে খুঁজাখোঁজির চেষ্টা করি। এলাকাবাসী এখন আতঙ্কে রয়েছে। এ ঘটনার পর ছেলে ধরা গুজবে আতঙ্কিত না হতে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে। ২৩ জুলাই সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ মাইকিং করে লোকজনকে সচেতন থাকার আহব্বান জানায়।

শাজাহানের বসত ঘরের টিনের বেড়া কাটার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, পুলিশ এলাকাবাসীকে আতঙ্কে না থাকার পরামর্শ দিচ্ছে। এছাড়া এলাকায় অপরিচিত কোনো ব্যক্তিকে দেখলে পুলিশকে খবর দিতে বলা হয়েছে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad