মাদারগঞ্জে মোটরসাইকেলচালকদের সচেতন করলো ছাত্রসমাজ

ছাত্রনেতা জি বি এম রুবেল আহম্মেদের নেতৃত্বে মেধাবী শিক্ষার্থীরা হাওয়ায় সড়কে মোটরসাইকেলচালকদের থামিয়ে সচেতন করেন। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে প্রতিনিয়তই ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। স্থানীয় মোটরসাইকেলচালকদের বেপোরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর কারণে গত কয়েকদিনে একটি শিশু নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। বেপোরোয়া মোটরসাইকেল চালকদের সচেতন করতে রাস্তায় নেমেছে স্থানীয় ছাত্র ও যুবসমাজ। এরই অংশ হিসেবে ৯ জুন মাদারগঞ্জের হাওয়ায় সড়কে মানববন্ধন ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেছে ছাত্রসমাজ।

জানা গেছে, জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় ঈদ উপলক্ষে বিভিন্ন সড়কে বেপোরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালাচ্ছে কিছু অসচেতন মানুষ। ঈদের দিন থেকে ৩য় দিন পর্যন্ত জামালপুর-মাদারগঞ্জ হাইওয়ে সড়ক ও উপজেলার হাওয়ায় সড়কে বেপোরোয়া অনিয়ন্ত্রিতভাবে গাড়ি চালিয়ে প্রায় ৭টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় সম্মুখীন হয়েছে। ৭ জুন বিকালে মাদারগঞ্জ মডেল থানার সামনে কলেজ পড়ুয়া কিছু ছাত্র ৩টি মোটর সাইকেল যুগে রাস্তায় প্রতিযোগিতা করলে রাস্তার পাশেই দাড়িয়ে থাকা আবির (৬) নামে এক এতিম শিশুর উপর তুলে দেয় মোটরসাইকেল। ঘটনাস্থল থেকে শিশুকে মাদারগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। মাদারগঞ্জ মডেল থানায় শিশুটিকে ময়না তদন্তসাপেক্ষে একটি মামলা করা হয়েছে।

মাদারগঞ্জে ছাত্র সমাজের উদ্যোগে হাওয়ায় সড়কে মানববন্ধন। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

এছাড়াও একই দিনে মোসলেমাবাদ সড়কেও কয়েকটি দুর্ঘটনা ঘটে। প্রতিনিয়ত প্রতিদিন এভাবেই সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাচ্ছে এবং আহত হচ্ছে একাধিক মানুষ। মাদারগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালসহ বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ঈদের দিন থেকে ভিড় জমেছে দুর্ঘটনাজনিত মানুষের। এ যেন পথে পথে দুর্ঘটনার মিছিল!

এরকম বেপোরোয়া অসচেতন মোটরসাইকেলচালকদের সচেতন করার লক্ষে মাদারগঞ্জে ছাত্র সমাজের উদ্যোগে ৯ জুন হাওয়ায় সড়কে মানববন্ধন ও চালকদের সচেতনতামূলক অভিযান চালানো হয়। মানববন্ধনে তাদের স্লোগান ছিল, ‘নিয়ন্ত্রণে গাড়ি চালান, দুর্ঘটনা এড়ান’। মানববন্ধনে ছাত্রনেতা, সমাজসেবক ও সাংবাদিক জি বি এম রুবেল আহম্মেদের নেতৃত্বে প্রায় শতাধিক মেধাবী শিক্ষার্থীরা হাওয়ায় সড়কে মানববন্ধন এবং মোটরসাইকেলচালকদের থামিয়ে সচেতন করেন।

তাদের দাবি আবিরের মতো নিষ্পাপ প্রাণ যেন আর অকালে না ঝরে এবং সকল মানুষ যেন রাস্তায় নিরাপদে চলাচল করতে পারে। জি বি এম রুবেল বলেন, যারা ঈদের আনন্দ পেয়ে বেপোরোয়াভাবে অতিমাত্রায় দ্রুত গাড়ি চালায় তাদের মনে রাখা উচিত, সড়ক কারো ব্যক্তিগত নয়। এটা হাওয়ায় সড়ক, হাইওয়ে নয়। অতি আনন্দ পেয়ে অনিয়ন্ত্রণে গাড়ি চালিয়ে, কারো প্রাণ কেড়ে নিবেন না। জনগণকে নিরাপদে চলাচল করতে দিন। আর প্রশাসনের এদিকে কড়া নজর রাখার দাবি জানাচ্ছি। রাস্তায় বেপোরোয়াভাবে কেউ গাড়ি চালালে তার উপযুক্ত শাস্তির দাবি করছি।

মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ছাত্রনেতা আবিদুর রহমান দিহান, মিশন, সবুজ, রানা, সাগর, রনি, শিশির প্রমুখ।

sarkar furniture Ad
Green House Ad