বকশীগঞ্জে একরাতে দুই বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি॥
জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় এক রাতে দুটি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। সাধুরপাড়া ও মেরুরচর ইউনিয়নে এই দুটি বিয়ে বন্ধ করা হয়।

জানা গেছে, ৬ অক্টেবার সন্ধ্যায় মেরুরচর ইউনিয়নের আইরমারী মরারপাড়া গ্রামের মো. সেলিম মিয়ার নবম শ্রেণিতে পড়–য়া শিশু কন্যা সখিনা আক্তার (১৩) সঙ্গে একই ইউনিয়নের ভাটি খেওয়ারচর গ্রামের ভুন্ডল মিয়ার ছেলে আজিজ মিয়ার বিয়ের তারিখ ঠিক করা হয়। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বাল্যবিয়েটি বন্ধ করে দেন।

অপরদিকে সাধুরপাড়া ইউনিয়নের মধ্য ধাতুয়াকান্দা গ্রামের মনর উদ্দিনের শিশু কন্যা ও ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী মুসলিমা বেগমের (১২) বিয়ের দিন ঠিক করা হয়। বকশীগঞ্জ পৌর এলাকার মালিরচর মৌলভী পাড়া গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে মনুজ মিয়ার (২০) এর সঙ্গে মুসলিমা বেগমের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। ৬ অক্টোবর রাত ১১টার দিকে বিয়ের সব প্রস্ততি সম্পন্ন করা হলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ইউএনও বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেন ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বলেন, বাল্যবিয়ে দুটি বন্ধের পর মেয়ের অভিভাবকরা তাদের মেয়েকে ১৮ বছরের আগে বিয়ে না দিতে অঙ্গীকার করেছেন।

Views 45   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad