টেস্টের স্মৃতি ভুলে ওয়ানডেতে ভালো করার মিশন শুরু করছে বাংলাদেশ

বাংলার চিঠি ডটকম ডেস্ক॥
টেস্ট সিরিজের হতাশা ভুলে এবার ওয়ানডেতে ভাল করার প্রত্যয় নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠ নামছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। লংগার ভার্সনে হোয়াইটওয়াশ হলেও নতুন অধিনায়কের অধীনে ভিন্ন দল নিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভাল করতে চায় টাইগাররা। গায়নায় সিরিজের প্রথমটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়।

ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় দুই টেস্টেই লজ্জার হার বরণ করে বাংলাদেশ। এন্টিগায় সিরিজের প্রথম ম্যাচে তো লজ্জার রেকর্ড গড়ে টাইগাররা। প্রথম ইনিংসে ৪৩ রানে অলআউট হয়ে নিজেদের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বনিম্ন রানে গুটিয়ে যাবার রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ।

প্রথম ইনিংসের ভুলগুলো দ্বিতীয় ইনিংসেও শুধরে নিতে পারেনি বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতায় অব্যাহত রাখে তারা। ১৪৪ রানে গুটিয়ে গিয়ে ইনিংস ও ২১৯ রানের বড় ব্যবধানে ম্যাচ হারে বাংলাদেশ। প্রথম টেস্টে এভাবে হারের পরও ঘুড়ে দাঁড়ানোর ইচ্ছার কথা বলেছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। কিন্তু নিজেদের কথা রাখতে পারেননি তারা।

দ্বিতীয় টেস্টেও দেখা যায় পুরনো বাংলাদেশকে। আবারো নিজেদের ব্যর্থতা তুলে ধরেন তামিম-সাকিব-মুশফিকুর-মাহমুদুল্লাহরা। তাই কিংস্টন টেস্টে ১৪৯ ও ১৬৮ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। এবার ১৬৬ রানে হারে টাইগাররা। ফলে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ অসহায়ভাবে হারে বাংলাদেশ।

টেস্ট সিরিজ হারের যতটা না যন্ত্রনাদায়ক, তার চেয়ে বেশি লজ্জার ছিলো বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের পারফরমেন্স। তবে বিদেশের মাটিতে এশিয়ার বাইরে টেস্ট ফরম্যাটে বাংলাদেশের এমন পারফরমেন্স অবাক করেনি ক্রিকেটপ্রেমিদের। কারন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের আগে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে দু’টেস্ট যাচ্ছেতাইভাবে হারে তারা। পচেফস্ট্রমে সিরিজের প্রথম টেস্ট ৩৩৩ রানে এবং ব্লুমফন্টেইনে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ ইনিংস ও ২৫৪ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ।

তবে টেস্ট ফরম্যাটের এসব পারফরমেন্স ভুলে গিয়ে ওয়ানডেতে ভালো পারফরমেন্স করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। কারন ওয়ানডেতে মাশরাফির নেতৃত্বে উজ্জীবিত এক দল বাংলাদেশ। তবে ছয় মাস পর ওয়ানডে খেলতে নামছে টাইগাররা। সর্বশেষ জানুয়ারি দেশের মাটিতে শ্রীলংকা-জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ।

ঐ সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচ দাপটের সাথে জিতে আগেভাগেই ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলে বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শিরোপার স্বাদ নিতে পারেনি মাশরাফির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। ফাইনালে শ্রীলংকার কাছে হেরে যায় ম্যাশের দল।

অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের আগে মাশরাফির খেলা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিলো। স্ত্রী সুমি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাওয়া নিয়ে দোটানায় পড়েন মাশরাফি। অবশেষে স্ত্রীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ গিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি। ম্যাশকে পেয়ে পুরো দলের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যাবারই কথা। যেমনটা অতীতে দেখা গেছে। কঠিন পরিস্থিতিতে দলকে উজ্জীবিত করেছেন মাশরাফি। সেক্ষেত্রে সাফল্য বয়ে এনেছে বাংলাদেশ। এবারও আশায় বুক বেঁধেছে ক্রিকেটপ্রেমীরা।

অবশ্য জয়ের তকমা গায়ে মেখেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে ৪ উইকেটে জয় পায় টাইগাররা। এই জয়ও বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাস অনেকখানি বাড়িয়ে দেবে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ৭টি ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫টি ও বাংলাদেশ ২টিতে জিতেছে। মুখোমুখি লড়াইয়েও এগিয়ে ক্যারিবীয়রা। ২৮ ম্যাচের মধ্যে ১৯টি জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ৭টিতে জিতে বাংলাদেশ।

এদিকে, ওয়ানডে সিরিজের জন্য শক্তিশালী দল গড়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আড়াই বছরেরও বেশি সময় পর অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলকে দলে নিয়ে এসেছে স্বাগতিকরা। এছাড়া দলে সুযোগ পেয়েছেন পেসার আলজারি জোসেফ ও ব্যাটসম্যান কাইরন পাওয়েল। তাদের সাথে আছেন ক্রিস গেইল এভিন লুইসের মত খেলোয়াড়রা।
বাংলাদেশ ওয়ানডে দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, আবু হায়দার রনি ও আবু জায়েদ চৌধুরি রাহি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল : জেসন হোল্ডার (অধিনায়ক), দেবেন্দ্র বিশু, ক্রিস গেইল, শিমরন হেটমায়ার, শাই হোপ, আলজারি জোসেফ, এভিন লুইস, জেসন মোহাম্মদ, অ্যাশলে নার্স, কেমো পল, কাইরান পাওয়েল, রোভম্যান পাওয়েল ও আন্দ্রে রাসেল।
সূত্র : বাসস

Views 58   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *