চলতি শীতে ৩২ লাখ কম্বল বরাদ্দ দিয়েছে সরকার : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী চিকিৎসক মো. এনামুর রহমান বলেছেন, সরকার দেশের দরিদ্র শীতার্ত মানুষের জন্য ৩১ লাখ ৯০ হাজার ৯০০ কম্বল বরাদ্দ দিয়েছে। তিনি বলেন, সারাদেশে বিশেষ করে উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলার শীতার্তদের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় ৭ লাখ ২১ হাজার ৮০০টি এবং প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ভান্ডার থেকে ২৪ লাখ ৬৯ হাজার ১০০ সহ মোট ৩১ লাখ ৯০ হাজার ৯০০ কম্বল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

এনামুর রহমান ২ জানুয়ারি সচিবালয়ের নিজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে শীত ও শৈত্যপ্রবাহ এবং সরকারের প্রস্তুতি নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। এসময় মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. শাহ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. মহসীন এবং মন্ত্রণালয়ের অতি. সচিব মো. আকরাম হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এনামুর রহমান বলেন, শীত ও শৈত্যপ্রবাহ শুরু হওয়ার পর থেকে দেশের শীতার্র্ত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য শীতবস্ত্র ক্রয়ের জন্য রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, যশোর, মাগুরা, নড়াইল, ফরিদপুর এবং গোপালগঞ্জে মোট ১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, শিশুদের শীতবস্ত্র ক্রয়ের জন্য রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, যশোর, মাগুরা, নড়াইল, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, সুনামগঞ্জে মোট ৫৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, শিশুখাদ্য ক্রয়ের জন্য রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, যশোর, মাগুরা, নড়াইল, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে মোট ২১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও রংপুর বিভাগের রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও এবং পঞ্চগড় জেলায় ১৬ হাজার শুকনো খাবার ও অন্যান্য খাবারের কার্টন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।সূত্র:বাসস।

sarkar furniture Ad
Green House Ad