ফারজানা লিটা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী

ফারজানা ইয়াসমিন লিটা

মাহমুদুল হাসান মুক্তা, জামালপুর প্রতিনিধি
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে খুবই পরিচিত মুখ জেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়ক ফারজানা ইয়াসমিন লিটা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী। জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গ সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরাও ফারজানা ইয়াসমিন লিটাকে এ পদে দেখতে চায়। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে ফারজানা ইয়াসমিন লিটা ইতিমধ্যে মাঠ পর্যায়ে সমর্থন আদায়, জনসংযোগসহ জেলা ও কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতাদের দ্বারে দ্বারে জোর লবিং করছেন।

জানা গেছে, আসছে মার্চ মাসের প্রথম থেকে ধাপে ধাপে অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। জামালপুর পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থীদের পাশাপাশি ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা ইতিমধ্যেই বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মীদের সাথে কুশল ও মতবিনিময় করছেন। দলীয় প্রতীকে দলীয়ভাবে এবার উপজেলা নির্বাচন হওয়ার খবরে নেতাকর্মীরা অনেকটাই উজ্জীবিত হয়ে উঠেছেন। এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের অনেকেই দৌড় ঝাঁপ শুরু করেছেন।

জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী অনেকেই ইতিমধ্যে জোর লবিং করছেন। তাদেরই একজন জামালপুরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সরব ও পরিচিত মুখ জামালপুর জেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়ক ফারজানা ইয়াসমিন লিটা। জামালপুর যুবলীগের রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণের আলোকবর্তিকা এই নেত্রীর হাত ধরে সারা জেলা যুব মহিলা লীগের সাংগঠনিক সক্রিয় কার্যক্রম ছড়িয়ে পড়েছে। বিগত পাঁচটি বছর ধরে তিনি জামালপুরের সবগুলো উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়েও যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠন করে যুবলীগের রাজনীতিতে যুক্ত করেছেন সক্রিয় এক নতুনমাত্রা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও বঙ্গবন্ধুকন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের রাজনীতিকে এগিয়ে নিতে ফারজানা ইয়াসমিন লিটা নিরলসভাবে রাজনীতির মাঠে সক্রিয় রয়েছেন।

জামালপুর সদর উপজেলার রশিদপুর ইউনিয়নের ছোনিয়াটেকি গ্রামের আনোয়ার হোসেন আঙ্গুরের কন্যা যুব মহিলা লীগ নেত্রী ফারজানা ইয়াসমিন লিটা ২০১১ সালে জামালপুর সরকারি জাহেদা সফির মহিলা কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স এবং ২০১২ সালে একই বিষয়ে জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে কৃতিত্বের সাথে মাস্টার্স পাশ করেন। কলেজ জীবনের শুরু থেকেই তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুবমহিলা লীগের রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে জড়িয়ে পড়েন। ২০১২ সালে তিনি জামালপুর সদর উপজেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়ক এবং পরবর্তীতে ২০১৬ সালের মে মাসে তিনি জামালপুর জেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়কের দায়িত্ব পান। তিনি ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল মনোনীত আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক ফেলো হিসেবে নারীনেতৃত্ব বিকাশে সক্রিয়ভাবে কাজ করে আসছেন। তিনি জামালপুর জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক। এর সাথে যুক্ত থাকার সুবাধে তিনি বাল্যবিবাহ কমিয়ে আনা এবং সামাজিক সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নের কাজ করে থাকেন। বিগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামালপুরের পাঁচটি আসনেই নৌকা প্রতীকের বিজয়ের জন্য ফারজানা ইয়াসমিন লিটার নেতৃত্বে যুব মহিলা লীগের নারীকর্মীরা ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত বেশ সরব ছিলেন।

আসছে জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে জামালপুর সদর উপজেলার আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গ সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ফারজানা ইয়াসমিন লিটাকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দেখতে চান। ফারজানা ইয়াসমিন লিটা ১৫টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকসহ সকল নেতৃবৃন্দ, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করে সমর্থন ও দোয়া চেয়েছেন। জামালপুর পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডেও রয়েছে তার সরব বিচরণ।

কেন ভাইস চেয়ারম্যান হতে চান, মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে কতটুকু আশাবাদী এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি রয়েছে, এসব বিষয়ে জানতে চাইলে জামালপুর জেলা যুব মহিলা লীগের আহবায়ক ফারজানা ইয়াসমিন লিটা বলেন, যুব মহিলা লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে আমি জামালপুর জেলায় যুবলীগের রাজনীতিতে নারীদের সম্পৃক্ত করতে শুধু সক্ষমই হইনি। নিয়মিত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উন্নয়নের রাজনীতি এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমাকে কাজ করার সুযোগ দেওয়া হলে জামালপুর সদর উপজেলার প্রতিটি গ্রামের সাধারণ মানুষের সেবা করা এবং বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নসহ জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাবো। আমার চেষ্টা থাকবে জামালপুর সদর উপজেলাকে একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য যেকোনো কর্মকাণ্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে বিশেষ ভূমিকা রাখা। আমি আওয়ামী লীগের জন্য নি:স্বার্থভাবে কাজ করি। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। আমি সকলের দোয়া ও সমর্থন চাই।

Views 24 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad