শেখ হসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোটের বিশাল জয়

বাংলারচিঠি ডটকম ডেস্ক॥
আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠা নিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিশাল বিজয় অর্জন করেছে।

দেশব্যাপী মৃদু ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ উপেক্ষা করে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা তৃতীয়বারের মতো মহাজোটের সরকার গঠিত হতে যাচ্ছে। এ ছাড়া শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করবে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ৭ লাখ সদস্যের তত্ত্বাবধানে এবার ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত এই সাধারণ নির্বাচনে মোট ২৯৯টি আসনের মধ্যে ২৯৮টির বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এছাড়া একটি আসনের মধ্যে একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনে ২৭ জানুয়ারি ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফলে আওয়ামী লীগের ২৫৯টি আসনসহ মহাজোট জিতেছে ২৮৮টি আসনে।

ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট পেয়েছে ৭টি আসন। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পেয়েছেন ৩টি আসন। মহাজোটের মধ্যে এইচ এম এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছে ২০টি আসন।

নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা বলেছেন, বিপুলসংখ্যক ভোটার শান্তিপূর্ণ পরিবেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন।

বিদেশী পর্যবেক্ষক ও স্বতন্ত্র নির্বাচন পর্যবেক্ষণ সংস্থাগুলো বলেছে যে বৈশ্বিক মানদন্ডে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অবশ্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন নির্বাচন কমিশনের কাছে নির্বাচন শেষ হওয়ার পরপরই বিভিন্ন আসনে ব্যাপক ভোট জালিয়াতির অভিযোগ করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানান।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরীক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ নিজ নিজ আসনে বিজয়ী হয়েছেন।

শেখ হাসিনা ও ড. কামাল হোসেন ভোট দেয়ার পর ‘ভি’ চিহ্ন দেখিয়ে ভোটারদের রায় লাভে তাদের দৃঢ় আস্থা প্রদর্শন করেন।

এবারের নির্বাচনে বিএনপি’র কৌশলী মিত্র জামায়াতে ইসলামী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে এবং ভোটের দিন দুপুরেই নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয়।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর দলের নেতা, কর্মী ও সমর্থকদের সংযত থাকা এবং নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত বিজয় মিছিল বের না করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি সংঘাতের রাজনীতির সংস্কৃতি বন্ধ করতে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীদের নির্বাচনের ফলাফল মেনে নেয়ারও আহ্বান জানান।
সূত্র : বাসস

Views 56   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad