লক্ষ্মীরচরে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র উদ্বোধন

নামফলক উন্মোচন করেন সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরা। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক
জামালপুর, বাংলারচিঠি ডটকম

প্রয়োজনীয় জনবল, ওষুধ, যন্ত্রপাতি ও আসবাবপত্র ছাড়াই পাঁচ বছর পর চালু হলো প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থাপিত জামালপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীরচরের ১০ শয্যাবিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র। জামালপুর সদর আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ১৫ অক্টোবর এটির উদ্বোধন করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গ্রামের প্রসূতি নারী এবং নারী ও শিশুদের হাতের কাছে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর জামালপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীরচর ইউনিয়নের বারুয়ামারীতে ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র স্থাপন করে। এর জন্য ৫০ শতাংশ জমি দান করেন সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরা এবং তার সহধর্মিনী সালমা বেগম। কেন্দ্রের মূল দ্বিতল ভবন এবং ডাক্তার ও নার্সদের জন্য আবাসিক পৃথক দুটি ভবন নির্মাণে ব্যয় করা হয় ৪ কোটি ৭১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার কর্তৃক ভবন নির্মাণের পর ২০১৩ সালের ২৪ জুলাই এটি জামালপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়কে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে মন্ত্রণালয়ের দুটি বিভাগ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কে চালাবে এটি এ নিয়ে রশি টানাটানিতে জনবল নিয়োগ না হওয়া এবং আসবাবপত্র, ওষুধ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ না করার কারণে দীর্ঘ পাঁচ বছর এটি চালু করা সম্ভব হয়নি।

সম্প্রতি মন্ত্রণালয় এটি পরিচালনার জন্য পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করেছে। ১৫ অক্টোবর এই কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আপাতত একজন নার্স ও দু’জন এমএলএসএস নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিছু আসবাবপত্রও পাওয়া গেছে। জনবল নিয়োগ হলে এখানে ২৪ ঘণ্টা প্রসবপূর্ব এবং পরবর্তী সময়ে প্রসূতিদের সেবাসহ নারী ও শিশুদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে ফাহমিদা আক্তার নামের স্থানীয় এক নারীকে প্রথম চিকিৎসাসেবা শেষে তাকে একটি স্বাস্থ্যকার্ড দেওয়া হয়।

চিকিৎসাসেবা দেওয়ার পর এক নারী পায় স্বাস্থ্যকার্ড। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরা এই কেন্দ্রের নামফলক উম্মোচন করেন। এর আগে এই কেন্দ্রে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, ‘এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি পরিচালনার দায়িত্ব সংক্রান্ত জটিলতা এখন আর নেই। প্রধানমন্ত্রীসহ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে জরুরি ভিত্তিতে এখানে একজন গাইনি চিকিৎসকসহ প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগের ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

জামালপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফরিদা ইয়াছমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জামালপুরের সিভিল সার্জন চিকিৎসক গৌতম রায়, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপপরিচালক নিরঞ্জনবন্ধু দাম ও সহকারী পরিচালক চিকিৎসক সাজদা-ই-জান্নাত তনু, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কোহিনূর বেগম, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মো. ইউছুফ আলী, সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরার সহধর্মিনী সালমা বেগম, লক্ষ্মীরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাতেম আলী তারা প্রমুখ।

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad