বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

বাংলারচিঠি ডটকম ডেস্ক॥
নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ১০ জানুয়ারি রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত হয়েছে।

সকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবনসহ সারাদেশে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল ৭টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধানমন্ডির বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় তিনি সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। শেখ হাসিনা পরে আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে ফের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

শ্রদ্ধা নিবেদনকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু ও তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী ও ড. আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও ডা. দীপু মনি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, সংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন ও এনামুল হক শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর বঙ্গবন্ধু ভবন এলাকা ত্যাগ করার পর বিভিন্ন দল ও সংগঠন ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষ জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যারা জাতির জনকের আদর্শকে অনুসরণ করে নাই, নির্বাচনে মানুষ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব এবং তাঁর উন্নয়ন দর্শনে আস্থা রেখেছে। আর সে জন্যই এবারের নির্বাচনে জনগণ আওয়ামী লীগকে বিপুল সমর্থন দিয়েছে।’

আওয়ামী লীগ জাতির পিতার আদর্শকে বুকে ধারণ করেই গণমানুষের কাতারে গিয়ে কাজ করবে জানিয়ে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সততা ও সাহসের যে দৃষ্টান্ত আমরা ধারণ করবো। এছাড়া আমাদের শপথ হবে আমরা মাটির কাছে থাকবো, মানুষের কাছে থাকবো। মানুষের কাজে থাকবো।

দিবসটি উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গমাতা পরিষদ এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বঙ্গমাতা পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোজাফ্ফর হোসেন পল্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের বন্ধুদের অনুরোধ করবো, আপনারা সংখ্যায় যে কয় জনই হন না কেন, মাথা গরম না করে শপথ নিয়ে সংসদে আসুন। সংসদে ভূমিকা রাখুন। আপনাদের বক্তব্য মানুষ গ্রহণ করতে পারে।’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, ‘আমরা আশা করবো, এক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিতরা শপথ গ্রহণ করবেন, সংসদে তারা ভূমিকা রাখবে। জনগণের ম্যান্ডেট তারা পেয়েছে, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। সেজন্য আমি মনে করি, তারা সংসদে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবেন, ধ্বংসাত্মক এবং নৈরাজ্যমূলক কাজ তারা করবেন না।’

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে বিকালে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এতে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এ ছাড়া বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন দিনটি উপলক্ষে আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা, দোয়া, ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।
সূত্র : বাসস

sarkar furniture Ad
Green House Ad