জামালপুরে নতুন পাঠ্যবই পেল ৭ লাখ ৯০৯ শিক্ষার্থী

নতুন বই পেয়ে খুশি মাছিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, জামালপুর
বাংলারচিঠি ডটকম

জামালপুরে বিপুল উৎসাহ আমেজের মধ্য দিয়ে মাধ্যমিক ও প্রাথমিক স্তরের ৭ লাখ ৯০৯ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যের ৬২ লাখ ২৭ হাজার ৮২টি নতুন পাঠবই বই বিতরণ করা হয়েছে। ১ জানুয়ারি সকাল ১০টায় জামালপুর শহরের সিংহজানী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সারা জেলার বই উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

জামালপুর শহরের সিংহজানী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যের নতুন পাঠ্যবই তুলে দিয়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রাজিব কুমার সরকার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম, সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নাহিদা ইয়াসমিন, সিংহজানী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তপন কুমার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন মাছিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবিদা সুলতানা ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

১ জানুয়ারি বেলা ১২টার দিকে জামালপুর পৌরসভার মাছিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে বেশ উৎসাহ আমেজে নতুন পাঠ্যবই বিতরণ করা হচ্ছে। এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবিদা সুলতানা তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ উদ্যোগকে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপের কথা জানিয়ে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ দিয়ে পড়ালেখা করে ভালোমত জীবন গড়ার আহবান জানান। তিনি শিক্ষার্থীরা যাতে বইয়ের যত্ন নেয়, বাড়িতে ঠিকমতো পড়ালেখা করে এবং নিয়মিত বিদ্যালয়ে হাজির থাকে সেজন্যও অভিভাবকদের প্রতি খেয়াল রাখার আহবান জানান।

মাছিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জামালপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো. ফজুলুল হক আকন্দ, সমাজসেবক মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, বিদ্যালয়টির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি বৈশাখী টেলিভিশনের সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন মুক্তা, সহসভাপতি মো. শাহজাহান সিরাজ, দাতা সদস্য মো. শিপুল আহমেদ, সহকারী শিক্ষক মো. ফরিদ উদ্দিন, অভিভাবক রোজী আক্তার, দৈনিক কালের কণ্ঠের সাংবাদিক মোস্তফা মনজু, জেলা যুবলীগের সদস্য সজিব মৃধা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মাছিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই উৎসব। ছবি : বাংলারচিঠি ডটকম

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ইবতেদায়ি, দাখিল, মাধ্যমিক ও কারিগরি স্তরের ৬৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩ লাখ ২৫ হাজার ৯০০ শিক্ষার্থীর মাঝে ৪২ লাখ ৪৬ হাজার ৬৬৩টি নতুন পাঠ্যবই বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত এবং ইবতেদায়ি প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে এসব বই বিতরণ করা হয়।

অপরদিকে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সরকারি, বেসরকারি, কেজি ও এনজিও স্তরের ২ হাজার ১৮০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ৩ লাখ ৭৫ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে ১৯ লাখ ৮০ হাজার ৪১৯টি নতুন পাঠ্যবই বিতরণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad