জামালপুর-১ আসনে আশা জাগছে জাতীয় পার্টিতে

বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠি ডটকম

সারাদেশের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। জামালপুরের পাঁচটি আসনের মধ্যে দুটি আসনে দ্বৈত প্রার্থীর নাম প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। আর এতেই আশা জেগেছে জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দের মধ্যে।

২৫ নভেম্বর আওয়ামী লীগ তাদের মনোনীত প্রার্থীদের দলীয় মনোনয়নপত্র হস্তান্তর করেছেন। জামালপুরের পাঁচটি আসনের মধ্যে তিনটিতে একক এবং দুটি আসনে দুইজন করে প্রার্থীর নাম সংবলিত মনোনয়ন চিঠি হস্তান্তর করা হয়।

এর মধ্যে জামালপুর-১ দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ আসনে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ ও বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। মনোনয়নের চিঠিতে দুজনের নামই রয়েছে। এতে দুই পক্ষের লোকজনই মিষ্টি বিতরণ, আনন্দ মিছিল করেছে।

যদিও আনন্দ প্রকাশ ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে এরপরও দোটানায় রয়েছে আওয়ামী লীগের কর্মী সমথর্করা। এখনও শঙ্কা প্রকাশ করেছে তারা। কারণ এখনও মনোনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত না হওয়ায় চিন্তিত রয়েছে আবুল কালাম আজাদ ও নূর মোহাম্মদের পক্ষের লোকজন ।

তবে বর্তমান সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের সমর্থকরা জানান, তিনি এই আসনের চারবারের সংসদ সদস্য তাই শেষ পর্যন্ত তাকেই দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হবে। অপরদিকে নূর মোহাম্মদের সমর্থকরা দাবি করেছেন, সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের দিন শেষ। তাকে আর আওয়ামী লীগ ও জনগণ চায় না। তাই এ আসনে বিএনপির প্রার্থীর সাথে মোকাবেলা করতে হলে নূর মোহাম্মদ ছাড়া বিকল্প নেই।

এদিকে জামালপুর-১ বকশীগঞ্জ ও দেওয়ানগঞ্জ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চূড়ান্তে দ্বৈত নাম আসায় আশায় বুক বেঁধেছে বকশীগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দ। কারণ এবার জামালপুরের পাঁচটি আসনের মধ্যে দুটিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নিয়ে দ্বিধা দ্বন্দ্বে রয়েছে। ২০১৪ সালের নির্বাচনে জামালপুর-৪ সরিষাবাড়ী আসনে জাতীয় পার্টির মামুনুর রশিদ জোয়ার্দার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এবার সে আসনে একক প্রার্থী চিকিৎসক মুরাদ হাসানকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

তাই জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম এ সাত্তার মহাজোট থেকে জামালপুর-১ আসনে প্রার্থী হওয়ার জন্য নির্বাচন কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তিনি ইতোমধ্যে সর্বোচ্চ তদবির করছেন মহাজোট থেকে মনোনয়ন নেওয়ার জন্য।

বকশীগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দের দাবি এই আসন এবার জাতীয় পার্টি নির্বাচন করবেন। তাই আওয়ামী লীগের দ্বৈত প্রার্থী দিয়েছে। শেষশেষ মহাজোট থেকে এম এ সাত্তার একক প্রার্থী হিসেবে মাঠে থাকবেন। আর এ জন্য ২৭ নভেম্বর পযন্ত সবাইকে অপেক্ষায় থাকতে বলেছেন জাতীয় পার্টির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা।

Views 33 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad