সরিষাবাড়ীতে বসছে অনুমোদনহীন পশুর হাট, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

সাতপোয়া ইউনিয়নের চর জামিরা অনুমোদনহীন পশুর হাট।ছবি: বাংলারচিঠিডটকম

মমিনুল ইসলাম কিসমত
নিজস্ব প্রতিবেদক, সরিষাবাড়ী, বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় প্রশাসনের অনুমোদন ছাড়ায় পশুর হাট বসিয়ে চলছে গবাদিপশু বেচাকেনা। এতে রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। আর সরকারিভাবে ইজারা নেয়া বৈধ হাট ইজারাদাররা পড়েছেন দুশ্চিন্তায়। অবৈধ পশু হাট বন্ধে প্রশাসনের প্রতি লিখিত অভিযোগ দিয়েও পাওয়া যায়নি কোন প্রতিকার।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার ১ নং সাতপোয়া ইউনিয়নের চর জামিরায় পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে অস্থায়ী গরুর হাট বসানোর জন্য গত ৩১ মে আবেদন করেন কয়েকজন। এর মধ্যে কাউকেই হাট বসানোর অনুমতি দেয়নি প্রশাসন। এদিকে অনুমোদন তোয়াক্কা না করেই অবৈধভাবে গত ৪ জুন ও ১১ জুন হাট বসিয়ে গবাদিপশু বেচাকেনা করে করে একটি অসাধু চক্র। অবৈধ গরুর হাটটি বন্ধে লিখিত অভিযোগ দিলেও কোনো প্রতিকার পায়নি এলাকাবাসী।

জানা যায়, সরকারিভাবে এ উপজেলায় দুটি গরুর হাট রয়েছে। ইজারাদাররা সরকারি নিয়ম মেনে হাট দুটিতে গরুসহ বিভিন্ন গবাদিপশু বেচাকেনা করে আসছে। অপরদিকে কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে কিছু প্রভাবশালীরা উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় অবৈধভাবে পশুর হাট বসিয়ে গবাদিপশু বেচাকেনা করছে। এতে করে সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

বৈধ হাট ইজারাদাররা অভিযোগ করে বলেন, সরকারিভাবে হাট ইজারা নেয়া হয়েছে। এখান থেকে সরকার রাজস্ব পাচ্ছে। আর অবৈধ হাট বসিয়ে কিছু মহল নিজেরা ফায়দা লুটে নিলেও সরকার এখান থেকে রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে। এসব বন্ধ হওয়া দরকার বলে জানান তারা।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আক্তার জানান, হাট বন্ধের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অনুমোদন না নিয়ে কেউ গরুর হাট বসিয়ে থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।