১৯৭১ সালের বাংলাদেশ গণহত্যার স্বীকৃতির দাবিতে জাতিসংঘ মহাসচিবের নিকট আবেদন

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক ❑ ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের নয় মাসে বাংলাদেশে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর দ্বারা সংঘটিত গণহত্যার (জেনোসাইড) স্বীকৃতির দাবিতে জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে আবেদন পত্র পেশ করেছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রবাহমান ১৮টি সংগঠন। জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ এ. মুহিত এর হাতে তার কার্যালয়ে ৫ অক্টোবর এ আবেদনটি হস্তান্তর করা হয়। এ সময় জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি (প্রেস) মো. নূরেলাহী মীনা উপস্থিত ছিলেন।

আমরা একাত্তরের চেয়ারপারসন মাহবুব জামান এর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি (আমেরিকা) ডা. নুরুন্নবী, আমেরিকায় উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি সুব্রত বিশ্বাস, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহিন রেজা নূর ও আমরা একাত্তরের সংগঠক শরফ হোসেন সরকার এ আবেদন হস্তান্তর করেন।

আমরা একাত্তরের চেয়ারপারসন বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব জামান ৬ অক্টোবর জাতীয় বার্তা সংস্থা বাসস’কে জানান, গত ৩ অক্টোবর ২০২২ নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে ‘৭১ এ বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যার জাতিসংঘ স্বীকৃতির দাবিতে এক মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশে আমরা একাত্তর, আর্টিস্ট ফোরাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, প্রজন্ম ৭১, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম, বাঙালিয়ানাসহ ১৮টি সংগঠনের প্রতিনিধি অংশ নেন। সেখানে বাংলাদেশ গণহত্যার স্বীকৃতির দাবিতে ১৮টি সংগঠনের পক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব বরাবর এক আবেদনপত্র পাঠ করা হয়। সেই আবেদন পত্রটিই জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধির কাছে হস্তান্তর করা হলো।

মাহবুব জামান বলেন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি আবেদনপত্রটি গ্রহণ করে এ ব্যপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। এ ছাড়াও আগামী ৯ ডিসেম্বর ২০২২ ‘ইন্টারন্যাশনাল জেনোসাইড রিমেম্বারেন্স ডে’ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে তারা বিস্তারিত আলোচনা করেন।সূত্র:বাসস।

sarkar furniture Ad
Green House Ad