ইসলামপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ও নদী ভাঙ্গন পরিবারের মাঝে প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ

ইসলামপুরে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ছবি:বাংলারচিঠিডটকম

লিয়াকত হোসাইন লায়ন, ইসলামপুর প্রতিনিধি, বাংলারচিঠিডটকম : জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। বন্যায় উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে পৌর এলাকার নিম্নাঞ্চল গোয়ালেরচর, পলবান্ধা, ইসলামপুর সদর, নোয়ারপাড়া, সাপধরী, চিনাডুলী, বেলগাছা, কুলকান্দি, পাথর্শীসহ ৯টি ইউনিয়নের সরকারি হিসাবে ২২ হাজার ৫০০ মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যার পানি ঘূর্ণমান স্রোতে যমুনা নদীর মডেল চর ইউনিয়ন সাপধরী, ব্রহ্মপুত্র নদীর পলবান্ধা ইউনিয়নের নতুনপাড়া ও গোয়ালেরচর ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামে নদী ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে।

২২ জুন বিকালে ইসলামপুর উপজেলা চিনাডুলী ইউনিয়নের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩ শত পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে জিআর চাল বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও গোয়ালেরচর ইউনিয়নের বন্যায় ব্রহ্মপুত্র নদ ভাঙ্গনের শিকার ক্ষতিগ্রস্ত ৮০টি পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৮০ প্যাকেট ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

এ সময় জামালপুর জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, ইসলামপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি চিনাডুলী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান আ. ছালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু জানান, বন্যা কবলিত ইসলামপুরে সরকারিভাবে ৯০ মেট্রিকটন চাল ও ৮ শত প্যাকেট প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বরাদ্দ রয়েছে। এ পর্যন্ত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ৩৮ মেট্রিক টন চাল ও ২০০ প্যাকেট প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad