চলমান থাকবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক ❑ করোনার কারণে অস্ট্রেলিয়া- ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজের এক ম্যাচ পিছিয়ে যাওয়ায় তার প্রভাব পড়েছে পাকিস্তান- ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে। সিডিউল বিপর্যয়ে এক ম্যাচ কমেছে। তবে কোনো ক্রিকেটার করোনায় আক্রান্ত হলেও বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ বাতিল হবে না। কারণ বায়োবাবলে থাকাকালীন কোনো ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হলে সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারকে কোন প্রক্রিয়ায় আইসোলেশন রাখা হবে, তা নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে বিসিবি ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে। মহামারির পর থেকেই বায়োবাবল নিয়ে কড়াকড়ি চলছে বিশ্বজুড়ে। তার মধ্যেও আক্রান্ত হচ্ছেন ক্রিকেটাররা। এই তো ক’দিন আগেও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ চলাকালীন আক্রান্ত হয়েছিলেন এক ক্যারিবীয় ক্রিকেটার। ভারত-লঙ্কার চলমান সিরিজেও করোনা আক্রান্তের কারণে পিছিয়েছে ম্যাচের শিডিউল। সূচি পিছিয়ে হলেও সিরিজ সম্পন্ন করছে বোর্ডগুলো। এরই ধারবাহিকতায় সমঝোতার পথেই হাঁটতে চায় বিসিবি ও অস্ট্রেলিয়া। তাই অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটলেও সিরিজ বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

এদিকে, হোটেল-ভেন্যু থেকে শুরু করে অনুশীলন মাঠ; ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া শর্ত মেনে ইতোমধ্যেই সবকিছু প্রস্তুত রেখেছে বিসিবি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। বিসিবির প্রধান নির্বাহী জানান, ‘সিরিজ চলাকালীন করোনা পজিটিভের খবর আসা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং বিষয়। তবে আমরা দুই বোর্ড আলোচনা করছি এরকম কিছু হলেও সিরিজ কিভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, সফলভাবে শেষ করা যায়।

পৃথিবী যখন স্বাভাবিক অবস্থায় ছিল তখনও বাংলাদেশের মাটিতে ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়াকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাওয়াটা ছিল দুষ্কর। অসাধ্যটা সাধন করতে কম কাঠখড় পোড়াতে হয়নি বিসিবিকে। বিশ্বকাপের আগে অজিদের বিপক্ষে সিরিজটা খেলার ব্যয়বহুল সুযোগ হাতছাড়া করেনি বোর্ড। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া চাহিদা মেনে সবকিছু প্রস্তুত রেখেছে বিসিবি।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী জানান, ‘আমরা যতটুক প্রস্তুতি নেওয়ার, সেটা আমরা নিচ্ছি। ভেন্যু, হোটেলসহ অন্য সব বিষয়ে অস্ট্রেলিয়া যেভাবে চাচ্ছে, যেভাবে তথ্য দিচ্ছে সেটার ভিত্তিতেই আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি। তাদের মূল চাওয়াই হচ্ছে বায়োবাবল নিশ্চিত করা। তাদের খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতই মূল লক্ষ্য। মেডিকেল বিভাগ, ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ নিয়মিত তাদের সাথে যোগাযোগ করছে।

ইতিমধ্যে ঢাকায় পা রেখেছে অজি ক্রিকেটররা। তিন দিনের কোয়ারেন্টাইনের পর ১ আগস্ট মাঠের অনুশীলনে নামার কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। টি-২০ সিরিজের ম্যাচগুলো মাঠে গড়াবে যথাক্রমে ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট। সব ম্যাচ হবে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। খেলা মাঠে গড়াবে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছয়টায়।

সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad