সরিষাবাড়ীতে ধান কাটা নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নারী-পুরুষসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। ২০ মে সকালে উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের মানিকপটল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের মানিকপটল গ্রামে আব্দুস সালামের স্ত্রী খালেদা বেগমের ৩৩ শতাংশ জমি নিয়ে প্রতিবেশী আব্দুর রহিমের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধপূর্ণ জমিতে খালেদা বেগম ধান চাষ করেছেন। প্রতিপক্ষ আব্দুর রহিম ও তার সমর্থকরা ২০ মে সকালে খালেদা বেগমের পাকা ধান কাটতে যায়। এতে বাধা দেন খালেদা বেগমের পরিবার ও সমর্থকরা। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। পরে লাঠিসোটা নিয়ে তারা সংঘর্ষে লিপ্ত হন।

সংর্ঘষে গুরুতর আহতদের সরিষাবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন- খালেদা বেগম (৪৫), তার মেয়ে শারমিন আক্তার (২৫) ও ছাবিনা আক্তার (১৮), আব্দুস সালাম, মরিয়ম বেগম ও লাকী আক্তার।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় আব্দুর রহিম (৩৩), ফিরোজ মিয়া (২৫) ও সুলতান মাহমুদ (২৭) নামে তিনজনকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় একইদিন দুপুরে খালেদা বেগম বাদী হয়ে সরিষাবাড়ী থানায় আব্দুর রহিমসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর রকিবুল হক সাংবাদিকদের জানান, জমির ধানকাটা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad