প্রয়াত সাংবাদিক আরিফের পরিবার পেল দুই লাখ টাকার আর্থিক সহায়তা

প্রয়াত সাংবাদিক আরিফ মাহমুদের সহধর্মিনীর হাতে আর্থিক সহায়তার নগদ টাকা ও চেক তুলে দেন মেয়র মোহাম্মাদ ছানোয়ার হোসেন। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে সম্প্রতি মৃত্যুবরণকারী একুশে টিভির জামালপুর জেলা প্রতিনিধি আরিফ মাহমুদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন জামালপুর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন ও একুশে টিভির সারাদেশের মফস্বলের সাংবাদিকরা।

প্রয়াত সাংবাদিক আরিফ মাহমুদের পরিবারকে দেওয়া আর্থিক সহায়তার মধ্যে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জামালপুর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন ব্যক্তিগত তহবিল থেকে দিয়েছেন নগদ এক লাখ টাকা। অন্যদিকে সারাদেশের একুশে টিভির মফস্বলের সাংবাদিকরা দিয়েছেন এক লাখ ১০ হাজার টাকা।

৫ মে দুপুরে জামালপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক আরিফ মাহমুদ স্মরণসভা ও আর্থিক সহায়তা বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামালপুর প্রেসক্লাব। জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও চ্যানেলআইয়ের সাংবাদিক হাফিজ রায়হান সাদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দৈনিক জামালপুরকণ্ঠের সম্পাদক ও জামালপুর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন।

স্মরণসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন একুশে টিভির ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রতিনিধি আতাউর রহমান জুয়েল, শেরপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও একুশে টিভির শেরপুর প্রতিনিধি মো. শরিফুর রহমান, জামালপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এটিএন বাংলার সাংবাদিক লুৎফর রহমান, দৈনিক আলোচিত জামালপুরের নির্বাহী সম্পাদক কবি সাযযাদ আনসারী, কালেরকণ্ঠের সাংবাদিক মোস্তফা মনজু, চ্যানেলটুয়েন্টিফোরের সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন মিন্টু, দৈনিক সচেতনকণ্ঠের সম্পাদক মো. বজলুর রহমান, সাংবাদিক আরিফ মাহমুদের সহধর্মিনী মনিরুন নাহার প্রমুখ।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে সাংবাদিক আরিফ মাহমুদ স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিটি নীরবতা পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিক আরিফ মাহমুদের সহধর্মিনী মনিরুন নাহারের হাতে আর্থিক সহায়তার চেক ও নগদ টাকা তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন এবং একুশে টিভির ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রতিনিধি আতাউর রহমান জুয়েল ও শেরপুর প্রতিনিধি মো. শরিফুর রহমান।

প্রসঙ্গত, একুশে টিভির সাংবাদিক আরিফ মাহমুদ গত ৩ এপ্রিল দুপুরে জামালপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগী ব্যাধিতে ভুগছিলেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৪৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই মেয়ে রেখে গেছেন।

Views 95   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad