প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ মামুনের, এসব মিথ্যাচার বললেন ছানোয়ার

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

পঞ্চম ধাপে আসছে ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন সংবাদ সম্মেলনে তাকে এবং তার দলের ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ তুলেছেন। তিনি ২২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নয়াপাড়ায় তার নির্বাচনী প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। অপরদিকে এই সংবাদ সম্মেলনের পর সাংবাদিকদের দেওয়া এক বিবৃতিতে মামুন তার পরাজয় নিশ্চিত জেনে এখন মিথ্যাচার করছেন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী মো. ছানোয়ার হোসেন ছানু।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ধানের শীষ মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী মো. ছানোয়ার হোসেন ছানুর সমর্থকরা বিএনপির প্রার্থীর সমর্থকদের হুমকি দিচ্ছে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য। গত ১১ ফেব্রুয়ারি শহরের পাথালিয়া গুয়াবাড়িয়া এলাকায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর সমর্থকরা অস্ত্র ঠেকিয়ে আমাকেও প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. সুরুজ্জামানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা অনেকস্থানে ধানের শীষের পোস্টার ছিঁড়ে ও পুড়ে ফেলেছে। নির্বাচনী মাঠে নামতেই দিচ্ছে না বিএনপি সমর্থিত সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের। বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। রাস্তাঘাটে যেখানেই যাচ্ছে সেখানেই হুমকি দেওয়া হচ্ছে। পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর সমর্থকরা পাহারা বসিয়েছে এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়ার কারণে এখনও পর্যন্ত কোন ওয়ার্ডে ধানের শীষ প্রতীকের একটি প্রচারকেন্দ্র বা অফিসও খুলতে পারি নাই।

তিনি বলেন, এ অবস্থায় আসছে জামালপুর পৌরসভা নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু না হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আমি এবং আমার দলের নেতাকর্মীরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে সংঘটিত প্রতিটি ঘটনা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাননি বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন তিনি। জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে এসব প্রতিকূলতার মধ্যেও ভোটের দিন পর্যন্ত মাঠে থাকারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ, ১২টি ওয়ার্ডের বিএনপি সমর্থিত সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. সুরুজ্জামান বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে তার বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জেলা বিএনপি দলীয় অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণেই শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। আসছে জামালপুর পৌরসভার নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনেই তিনি এখন আমার বিরুদ্ধে এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছেন।

আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ছানোয়ার হোসেন ছানু তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থীর অভিযোগ প্রসঙ্গে বাংলারচিঠিডটকমকে বলেন, বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন সংবাদ সম্মেলনে আমার ও আমার দলের বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ মিথ্যাচার করেছেন। আমার কোনো কর্মীসমর্থক বা আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকর্মী বিএনপির প্রার্থী ও তার সমর্থকদের কোনো প্রকার হুমকি ও ভয়ভীতি দেখায়নি।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরেই শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন নিজ দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছেন। আসছে নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনেই শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন এখন আবুল-তাবুল বক্তব্য দিচ্ছেন। তার মিথ্যাচার ও আবুল তাবুল বক্তব্যে বিভ্রান্ত না হয়ে উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দিয়ে জামালপুর পৌরসভার উন্নয়নের কাজ করার সুযোগ দেওয়ার জন্য জামালপুর পৌরসভার ভোটারদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন ছানোয়ার হোসেন ছানু।

Views 194   ফেসবুকে শেয়ার করুন!
সর্বশেষ
sarkar furniture Ad
Green House Ad