ঘোড়াধাপে ধর্ষণের শিকার শিশু হাসপাতালে, আটক ধর্ষককে গণধোলাই

আটক ফরহাদ হোসেন। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুর সদর উপজেলায় সাত বছরের এক কন্যাশিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ফরহাদ হোসেন (২৮) নামের এক যুবককে হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই শেষে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী। ১৩ জানুয়ারি দুপুরে উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের বন্দচিথলিয়া গ্রামে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গুরুতর অসুস্থ শিশুটিকে জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আটক ফরহাদ স্থানীয় আব্দুল হামিদের ছেলে।

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের বন্দচিথলিয়া গ্রামের বখাটে যুবক ফরহাদ ১৩ জানুয়ারি বেলা আড়াইটার দিকে প্রতিবেশী এক দরিদ্র পরিবারের সাত বছরের কন্যাশিশুকে ফুসলিয়ে রাস্তার পাশের বাগানের জঙ্গলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে স্থানীয় কয়েকজন যুবক এগিয়ে গেলে ফরহাদ পালিয়ে যান। ঘটনা জানাজানি হলে তাকে ধরার জন্য ঢাকা-জামালপুর সড়কের ঘোড়াধাপ বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে ফোন করে পাহারা বসায় গ্রামবাসী।

এর ঘন্টাখানেক পর বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ধর্ষক ফরহাদ স্থানীয় ঘোড়াধাপ বাজারে ঢাকামুখী একটি যাত্রীবাহী বাসে উঠে পালানোর সময় সেখানে টহলরত দু’জন পুলিশ ও স্থানীয়রা তাকে চিনে ফেললে বাস থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন ফরহাদ। পরে পুলিশ ও স্থানীয় গ্রামবাসী তাকে আটক করতে সক্ষম হয়। এ সময় স্থানীয়রা তাকে গণধোলাইও দেয়। স্থানীয় নরুন্দি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ফরহাদকে আটক করে জামালপুর সদর থানায় সোপর্দ করেছে। অপরদিকে বন্দচিথলিয়ায় ধর্ষণের শিকার হয়ে গুরুতর অসুস্থ শিশুটিকে উদ্ধার করে জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে পুলিশ।

নরুন্দি তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক টিপু সুলতান এ প্রতিবেদককে বলেন, সাত বছরে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ফরহাদকে সদর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। শিশুটির মাকে সাথে দিয়ে শিশুটিকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রেজাউল ইসলাম খান এ প্রতিবেদককে বলেন, ঘোড়াধাপে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ফরহাদকে আসামি করে থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হতে পারে বলে জানান তিনি।

Views 101 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad