সরিষাবাড়ীতে আগুনে দুই হাজার মণ পাট পুড়ে ছাই

আগুনে অর্ধকোটি টাকার পাট পুড়ে গেছে। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় পাটগুদামে আগুন লেগে অর্ধকোটি টাকার পাট পুড়ে ছাই হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ৪ ডিসেম্বর ভোর রাতে মহাদান ইউনিয়নের সেংগুয়া হাজীবাড়ী মোড়ে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে সরিষাবাড়ীর দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও গুদাম মালিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সেংগুয়া গ্রামের মৃত হোসেন আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান রোকনের টাকায় একই গ্রামের আব্দুল হক, আল আমিনসহ তিনজনে একসাথে পাটের ব্যবসা করে আসছেন। উপজেলার সেংগুয়া হাজীবাড়ী মোড় এলাকায় রোকনের নিজস্ব গুদামে বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় দুই হাজার মণ পাট ক্রয় করে ওই গুদামে সংরক্ষণ করেছিল । যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় অর্ধকোটি টাকা। ইতিমধ্যে পাটগুলো টাঙ্গাইল জেলার গোপালপুরের এক ব্যবসায়ীর নিকট বিক্রি বায়নাপত্র করে। ৪ ডিসেম্বর ভোর রাত হঠাৎ গুদামে আগুন জ্বলতে থাকে। আশে পাশের লেকজন আগুন দেখে দৌড়া-দৌড়ি করে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। স্থানীয় দমকল বাহিনীকে সংবাদ দিলে ঘটনার আধা ঘন্টা পর দমকল বাহিনী এসে প্রায় ২ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় হাবিবুর রহমার রোকন বাদী হয়ে ৪ ডিসেম্বর সকালে সরিষাবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

পাট ব্যবসায়ী রোকন মিয়া এ প্রতিবেদককে জানান, তার গুদামে কোন বিদ্যুৎ সংযোগ ও কোন পাহারাদার নেই দুষ্কৃতিকারীরা পরিকল্পিতভাবে তার গুদামে গভীর রাতে আগুন দিয়েছে। এতে প্রায় দুই হাজার মণ পাট পুড়ে গেছে। তিনি বলেন, আমার সকল মুলধন শেষ হয়ে গেছে। দুষ্কৃতিকারীরা পরিকল্পিতভাবে আমাকে পথের ফকির করে দিল।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু মো. ফজলুল করীম এ প্রতিবেদককে বলেন, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad