ফরিদুল হক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় ইসলামপুরে আনন্দ মিছিল, জেলা আওয়ামী লীগের অভিনন্দন

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান দুলাল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের ইসলামপুর আসন থেকে তিনবার নির্বাচিত আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও বর্তমান সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি সদস্য মো. ফরিদুল হক খান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ায় তার নির্বাচনীয় এলাকা ইসলামপুরে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গদলের নেতা-কর্মীদের মাঝে আনন্দের বন্যা বইছে। ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় তার শপথ গ্রহণের পরপরই ইসলামপুরে আনন্দ মিছিল, শোকরানা সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে মিষ্টি বিতরণ করেছে নেতা-কর্মীরা।

দলীয় একাধিক সূত্র জানায়, মো. ফরিদুল হক খান ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের কাছে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পরপরই ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল লতিফ সরকারের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গদলের নেতা-কর্মীরা একটি আনন্দ মিছিল বের করে। মিছিলটি স্থানীয় বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বটতলা মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে শোকরানা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। সভা শেষে নেতা-কর্মীরা একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান এবং স্থানীয়দের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করেন।

এদিকে ইসলামপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আইনজীবী এস এম জামাল আব্দুন নাছের এ প্রতিবেদককে বলেন, সংসদ সদস্য মো. ফরিদুল হক খান প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত এবং উচ্ছ¡সিত। ইসলামপুর উপজেলা পরিষদ, উপজেলা আওয়ামী লীগসহ সর্বোপরি ইসলামপুর উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। দীর্ঘদিন পর এই আসনে একজন প্রতিমন্ত্রী দেওয়ায় ইসলামপুরসহ জেলার পাঁচটি আসনেই বর্তমান সরকারের গতিশীল উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে আরো গতিশীল করার সুযোগ সৃষ্টি হলো।

মো. ফরিদুল হক খান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ায় জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক ও জামালপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ এ প্রতিবেদককে বলেন, আমাদের ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য মো. ফরিদুল হক খানকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত করায় জামালপুর জেলার ২৬ লাখ মানুষের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানাই। একই সাথে নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রীর সফলতা কামনা করি এবং জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাকে অভিনন্দন জানাই। তার দায়িত্ব-কর্তব্য পালনে সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেন এই নেতা।

প্রসঙ্গত, জামালপুর জেলার পাঁচটি আসনের মধ্যে ইসলামপুর আসনটি আওয়ামী লীগের অন্যতম ঘাঁটি বলে পরিচিত। বাংলাদেশ কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি ও প্রয়াত সাবেক ভূমি প্রতিমন্ত্রী হাজি রাশেদ মোশাররফ ১৯৭০ এর নির্বাচনে এই আসন থেকে প্রথম প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হন। স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়, পঞ্চম ও সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতাসীন হলে প্রথম মন্ত্রিসভার ভূমি প্রতিমন্ত্রী ছিলেন হাজি রাশেদ মোশাররফ। ২০১১ সালের ১০ নভেম্বর তিনি ৭৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মাঝে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসনটি বিএনপির কাছে হাতছাড়া হয়।

এরপর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মো. ফরিদুল হক খানকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ এই আসনটি তাদের ঘরে তুলে। এরপর দশম ও বর্তমান একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও নির্বাচিত হন মো. ফরিদুল হক খান। একই সাথে তিনি ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। রাজনৈতিক কর্মসূচিতে নিয়মিত সরব থাকার পাশাপাশি ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীভাঙনরোধসহ এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে তার বেশ অবদান রয়েছে। চলতি বছরের মার্চে করোনা সংক্রমণের শুরুর দিক থেকেই তিনি টানা প্রায় পাঁচ মাস এলাকায় অবস্থান করে সরকারি বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি ব্যক্তিগতভাবেও নানা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ান। মাঠপর্যায়ে নিয়মিত কাজ করতে গিয়ে তিনি করোনায়ও আক্রান্ত হয়েছিলেন।

Views 146 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad