সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে দরকার প্রশিক্ষিত গাড়িচালক : তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান

জামালপুরে কম্পিউটার ও ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী চিকিৎসক মো. মুরাদ হাসান এমপি। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

তথ্য প্রতিমন্ত্রী চিকিৎসক মো. মুরাদ হাসান বলেছেন, দেশের সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনা কমাতে দরকার প্রশিক্ষিত ও দক্ষ গাড়িচালক। যারা প্রশিক্ষণ দিবেন তাদেরকে দক্ষ প্রশিক্ষক হতে হবে। বেকার যুবকরা সঠিক প্রশিক্ষণ নিয়ে যাতে স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি নিজের এবং অন্যের জীবনের নিরাপত্তা ও নিশ্চয়তা নিয়ে রাস্তায় গাড়ি চালাতে পারে।

১৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় জামালপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে কম্পিউটার ও ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বের সাথে বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে। অনলাইন প্লাটফরম বিশ্বে এখন গুরুত্বপূর্ণ প্লাটফরম। প্রযুক্তির সাথে সবাইকে সম্পৃক্ত হতে হলে তথ্য-প্রযুক্তি ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণের কোন বিকল্প নেই। এর মাধ্যমে বেকারত্ব দূর করে সবাইকে স্বাবলম্বী হওয়ার সঠিক পথ দেখাতে হবে। বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার চায় কেউ পিছিয়ে থাকবে না। আমরা সবাইকে সাথে নিয়েই একটি আধুনিক, উন্নত, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত জাতির পিতার সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই।

জামালপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে কম্পিউটার ও ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ উদ্বোধন করেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী চিকিৎসক মো. মুরাদ হাসান এমপি। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জিআরইএস সংস্থার চেয়ারম্যান শামীমুল হক শামীমের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগ জামালপুরের উপ-পরিচালক কবীর উদ্দিন আহমেদ ও সমাজসেবা অধিদপ্তর ঢাকার নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ বিভাগের উপ-পরিচালক স্বপন কুমার হালদার। এর আগে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জিআরইএস সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. রাহাত খান এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. রাজু আহমেদ, প্রশিক্ষণার্থী সামছুন্নাহার কনা ও ফানছুজ্জামান প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সমাজসেবা অধিদপ্তর ও বেসরকারি সংস্থা গ্লোবাল রুরাল এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি-জিআরইএস যৌথভাবে অনগ্রসর ও হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য আত্মকর্মসংস্থানমূলক কাজের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ২১ দিনব্যাপী বিনামূল্যে কম্পিউটার ও ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ কর্মসূচির আওতায় জামালপুর জেলার সাতটি উপজেলায় দুই হাজার ৫২০ জন নারী-পুরুষকে মটরড্রাইভিং এবং ৪৫০ জন নারী-পুরুষকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

sarkar furniture Ad
Green House Ad