সন্ত্রাসীদের হামলায় ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গুরুতর আহত

ইউএনও ওয়াহিদা খানম

বাংলারচিঠিডটকম ডেস্ক : সন্ত্রাসীদের হামলায় ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম গুরুতর আহত হয়েছেন। ২ সেপ্টেম্বর দিবাগত গভীর রাতে সন্ত্রাসীরা ঘরের দরজা ভেঙ্গে বাসায় ঢুকে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম ও তার বৃদ্ধ পিতাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়।

গুরুতর আহত ইউএনও ও তার পিতাকে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ৩ সেপ্টেম্বর দুপুর ২টার দিকে তাকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় বিমান বাহিনীর এয়ার এ্যাম্বুলেন্স যোগে ঢাকায় পাঠানো হয়।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন জানান, ২ সেপ্টেম্বর দিবাগত মধ্যরাতে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তার সরকারি বাস ভবনে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে এলোপাথারি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় ওয়াহিদা খানমের আত্মচিৎকারে বাসায় থাকা তার বৃদ্ধ পিতা অমর আলী খান এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাকেও বেদম প্রহার করে। একপর্যায়ে বাবা মেয়ে দু’জনই গুরুতর আহত হয়ে ঘরের মেঝেতে পড়ে যায়।

৩ সেপ্টেম্বর ভোর ৫টার দিকে তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। তার পিতা অমর আলী রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিরুল ইসলাম জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসার সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে পর্যবেক্ষনের কাজ চলছে। তবে অপরাধীরা নিজেদের আড়াল করতে মুখ ও মাথা ঢেকে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়েছে বলে সংগ্রহকৃত ভিডিও ফুটেজে দেখা যাচ্ছে। তিনি বলেন, অপরাধীদের সনাক্ত করে তাদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Views 45 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad