সানন্দবাড়ীতে ব্রহ্মপুত্রে বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি

সানন্দবাড়ীতে ব্রহ্মপুত্র নদে বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

বোরহান উদ্দিন, সানন্দবাড়ী (দেওয়ানগঞ্জ) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের পশ্চিমপাড়া, মন্ডলপাড়া, মৌলভীরচর গ্রাম ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গনে হুমকির মধ্যে রয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গনে যেকোন সময় বিলীন হয়ে যেতে পাড়ে। ৩টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষের বসবাস, ইতিমধ্যে কয়েক শত বিঘা আবাদি জমি, ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে ব্রহ্মপুত্র নদের গর্ভে, তীব্র ভাঙ্গনে।

ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গনে ওই সকল গ্রামের শত শত জনসাধারণ, অসহায় হত্যদরিদ্র পরিবার তাদের মাথা গোজার কোনো ঠাঁই থাকবে না। যাদের ঘরবাড়ি নদের ভাঙ্গনে চলে গেছে, ওই সকল পরিবার আজ অনেকে রাস্তার পাশে আশ্রয় নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে । এক সময় গোয়াল ভরা গরু, পুকুর ভরা মাছ, গোলাভরা ধান ছিল। আজ ওই সকল পরিবারে নেমে এসেছে দুঃখ কষ্ট।

এলাকার হাজার হাজার জনসাধারণ ও অসহায় মানুষগুলো বলেন, জরুরীভাবে জিওব্যাগ দিয়ে নদী শাসন ব্যবস্থা না করলে হয়তোবা কিছু দিনের মধ্যে ৩টি গ্রাম ব্রহ্মপুত্র নদের গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে। এতে কয়েক হাজার মানুষের বসতভিটা নদীতে চলে গেলে তাদের দুঃখের শেষ থাকবে না। অনেকে হয়তো পথে বসবে। ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যাবে। কোথায়ও ঠাঁই পাবে না। জরুরী ভিত্তিতে জিওব্যাগ ফেলে ভাঙ্গন রোধ না করলে নেমে আসবে মানুষের চরম দুঃখ।

চরআমখাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শাহার আলী ও সদস্য আমিনুল ইসলামসহ সুধীমহল বলেন, আমরা এই ৩টি গ্রামের ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ উপর মহলের সবাইকে বলেছি। তারা হয়তোবা সেভাবে নজরে নেয়নি। জরুরীভাবে নদী ভাঙ্গন রোধ করা না গেলে বা কোন প্রকল্পের কাজের ব্যবস্থা না হলে আমাদের মাথা গোঁজার কোনো ঠাঁই থাকবে না।

ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গন রোধে সানন্দবাড়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য দাবি জানান, সানন্দবাড়ী বাজার বনিক সমিতির সভাপতি গাজীউর রহমান, সানন্দবাড়ি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজিম উদ্দিন, চরআমখাওয়া ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি জামাত আলী, চর আমখাওয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী মোল্লা, চরআমখাওয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফাতহুল বারী আখন্দ, চরআমখাওয়া যুবলীগের আহ্বায়ক আবু সামা আকন্দ, যুবলীগের সাবেক সভাপতি আমিনুল ইসলাম আকন্দ, মৌলভীর চর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ জালাল উদ্দীন, সাংবাদিক আব্দুস সালাম সিকদার, কবি আজিজুর রহমান, সানন্দবাড়ী হাট ইজারাদার রেজাউল করিম লাভলু, সাংবাদিক বোরহানউদ্দিন ও মোস্তাইন বিল্লাহ।

চরআমখাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান আকন্দ বলেন, এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সহ সকল মহলের কাছে সুদৃষ্টি কামনা করছি জরুরী বেড়িবাঁধের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুলতানা রাজিয়া বলেন, সানন্দবাড়ী ৩টি গ্রাম ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গনের বিষয় আমার জানা নেই, চরআমখাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে জানান নি। তবে গ্রাম ৩টি রক্ষা করতে নদের ভাঙ্গন রোধের ব্যাপারে জরুরী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Views 86 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad