সরিষাবাড়ীতে হাঁসের খামার ভাংচুর, লুটপাট

ছাইতানী বিলের খামারে বসে চিন্তায় শফিকুল ইসলাম লিটু বাগা। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম
সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় নিরাপত্তা প্রহরীকে বেঁধে রেখে হাঁসের খামারে হামলা ভাংচুর লুটপাট করেছে মাদকাসক্ত নূরনবী ও তার বাহিনী। উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের করবাড়ী গ্রামের ছাইতানী বিলে এ ঘটনা ঘটে। ১০ জুলাই রাতে খামারী মালিক শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে নূরনবীসহ সাতজন ও অজ্ঞাত আরও ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে সরিষাবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের মৃত সাবেদ আলী মন্ডলের ছেলে শফিকুল ইসলাম লিটু বাগা (৫০)। তিনি তিন বছর ধরে নিজ গ্রামের ছাইতানী বিলে হাঁস ও মৎস্য খামার দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। বিলের ভিতর হাঁস রক্ষণাবেক্ষণের জন্য তিন স্তরে (৩ তলা) টিনসেড ঘর নির্মাণ করেছেন। বিলের মাঝে খামারে জোর পূর্বক নূরনবীসহ তার দলবল মাদক সেবন করে প্রতিনিয়ত। এতে খামার পাহারাদার আব্দুল আজিজ বাধা দিলে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল। ৯ জুলাই রাতে ফের মাদক সেবন করতে গেলে বাধা দিলে ফিরে আসে মাদক সেবনকারীরা।

পরে ১০ জুলাই ভোর রাতে নূরনবীরসহ ১২-১৩ জনের একটি দল ওই খামারে হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে পাহারাদারকে বেঁধে রেখে ব্যাপক মারধর করে ভাংচুর চালায় এবং খামার থেকে সাড়ে ৪ শতাধিক হাঁস নিয়ে চলে যায় তারা। পরে পাহারাদার পালিয়ে এসে খামার মালিক শফিকুল ইসলামকে জানায়। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে খামারীর সহযোগী সজীব নামে একজনকে রাস্তায় একা পেয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে মাদক সেবনকারীরা। আহতদের সরিষাবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সরিষাবাড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আশরাফুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান, হাঁসের খামারে হামলা ভাংচুর লুটপাটের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Views 96 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad