মির্জা আজমের প্রচেষ্টায় জামালপুর ও শেরপুর জেলা পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে আরও ১৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ

আজিজুর রহমান ডল॥
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি’র ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় একনেকের সভায় ‘জামালপুর ও শেরপুর জেলা পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন’ প্রকল্পে আরও ১৩৩ কোটি টাকার বর্ধিত প্রকল্পের অনুমোদন পেয়েছে।

ঢাকায় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ৬ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পটির অনুমোদন দেন। আগে অনুমোদিত এবং বাস্তবায়নাধীন ৩৮৭ কোটি টাকার প্রকল্পের সাথে নতুন বরাদ্দ আরও ১৩৩ কোটি টাকা যুক্ত হয়ে মোট ৫২০ কোটি টাকায় উন্নীত হলো এই প্রকল্পটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ৫২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়নাধীন জামালপুর ও শেরপুর জেলার পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দুই জেলার গ্রামীণ জনপদের রাস্তাঘাট, ব্রিজ ও কালভার্ট নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে এই দুই জেলার গ্রামীণ জনপদের সাথে শহরের যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়নের পাশাপাশি গ্রামের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভালো প্রভাব ফেলবে। ফলে গ্রামীণ জনপদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য থেকে শুরু করে অন্যান্য পণ্য পরিবহন ও মানুষের যাতায়াতের দুর্ভোগ লাঘব হবে।

একনেকের সভার সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জামালপুর ও শেরপুর জেলার পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন পকল্পে আরও ১৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ায় জামালপুর ও শেরপুর জেলাবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি।

উল্লেখ্য, সাবেক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় জামালপুর জেলা উন্নয়নের এক নতুন যুগে অবস্থান করছে। তারই প্রচেষ্টায় গত জুন মাসের একনেকের সভায় জামালপুর জেলা কারাগার পুনর্নির্মাণের জন্য ২১০ কোটি টাকার প্রকল্প পাস হয়েছে। এই প্রকল্পটিসহ জেলায় অন্তত পক্ষে ৫৫ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের বেশ কিছু প্রকল্প দৃশ্যমান হয়েছে, অনেক প্রকল্প দৃশ্যমান হওয়ার পথে রয়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সাথে জামালপুর জেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন হতে যাচ্ছে। বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়ে ৬৪টি জেলার মধ্যে ১০টি উন্নত জেলার তালিকায় জামালপুর জেলাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন মির্জা আজম এমপি।

Views 77 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad