মানুষকে নির্মোহভাবে ভালবাসতে হবে : ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন

বিশেষ মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন অর রশিদ। ছবি : বাংলারচিঠিডটকম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ বিপিএম পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের উদ্দেশে বলেছেন, মানুষকে নির্মোহভাবে ভালবাসতে হবে। তাদেরকে কোনরকম নির্যাতন ও নিপীড়ন করা যাবে না। সব সময় মানুষের পাশে থেকে সেবা দিতে হবে। এমন কি অপরাধের দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তির সাথেও বিধিবহির্ভূত আচরণ করা যাবে না। পুলিশকে পেশাদারিত্বের সাথে অপরাধ দমন ও প্রতিরোধ করতে হবে।

২৩ জুন বিকেলে জামালপুর পুলিশ লাইন্স ড্রিলশেডে জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে অনুষ্ঠিত বিশেষ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। জেলা পুলিশ এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। এই সভাটি মূলত সম্প্রতি বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের (বিপিএম-বার) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রদত্ত পাঁচদফা নির্দেশাবলী সম্পর্কে এই রেঞ্জের পুলিশ কর্মকর্তাদের অবহিতকরণ ও উদ্দীপনামূলক সভা।

বিট পুলিশিং কার্যক্রম প্রসঙ্গে ডিআইজি বলেন, মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার- এ স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি মহোদয়ের নির্দেশনায় বিট পুলিশিং কার্যক্রমের মাধ্যমে পুলিশি সেবাকে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে পৌঁছে দিতে হবে। এ লক্ষ্যে প্রতিটি ইউনিয়নকে একটি বিটের আওতায় এনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, অপরাধ দমন ও নিয়ন্ত্রণ করাসহ মানুষের পাশে থেকে সেবা প্রদান করতে হবে।

তিনি বলেন, দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করতে হলে প্রথমে পুলিশকে দুর্নীতিমুক্ত হতে হবে। পুলিশ সদস্যরা কোনভাবেই কোন ধরনের দুর্নীতিতে সম্পৃক্ত হতে পারবে না। পুলিশের কোন সদস্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেলে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোন পুলিশ সদস্য অবৈধভাবে কোন অর্থ উপার্জন করতে পারবেন না। পুলিশে চাকরি করে কেউ যদি বড়লোক হতে চায়, তাহলে সে চাকরি ছেড়ে দিয়ে ব্যবসা করুক কিন্তু পুলিশে থেকে কোনভাবেই দুর্নীতির সাথে যুক্ত থাকা যাবে না।

মাদক নির্মূল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের যুব সমাজকে এই মাদকের ছোবল থেকে রক্ষা করতে হবে। মাদকের সাথে পুলিশের কোন সদস্যের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উপস্থিত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের তিনি একমাসের মধ্যে যার যার থানা এলাকা মাদকমুক্ত করার আল্টিমেটাম দেন।

ডিআইজি আরও বলেন, চলমান করোনাভাইরাসের এই সংকটময় মুহূর্তে জামালপুর জেলা পুলিশসহ সারাদেশে পুলিশের প্রাত্যহিক ও মানবিক কার্যক্রম প্রান্তিক জনগোষ্ঠীসহ সারাবিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। পুলিশের এই মানবিক কার্যক্রমের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে ‘ভিশন-২০৪১’ উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে এগিয়ে যেতে হবে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে পুলিশ সদস্যদের শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে।

জামালপুরের পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেনের (বিপিএম, পিপিএম-বার) সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই বিশেষ মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. মো. আক্কাছ উদ্দিন ভূঞা। মতবিনিময় সভায় জেলায় কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সহকারী পুলিশ সুপার ও সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ পরিদর্শক পদমর্যাদার সকল কর্মকর্তাবৃন্দ অংশ নেন।

Views 39 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad