জামালপুর পিসিআর ল্যাবের ৪ চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত, আজ বন্ধ পিসিআর ল্যাব

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরে ২৩ মে পাঁচজন চিকিৎসকসহ নতুন করে আরও আটজনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে কর্মরত চারজন চিকিৎসক ও বকশীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালের একজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ২৩ মে মাঝরাতে জামালপুর পিসিআর ল্যাব থেকে এ প্রতিবেদন আসে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ১৭৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। জেলার সিভিল সার্জন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে জামালপুর পিসিআর ল্যাবের চারজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় ২৪ পিসিআর ল্যাবের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে পুরো ল্যাবটি জীবাণুমুক্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে ল্যাব কর্তৃপক্ষ। ল্যাবটি বন্ধ থাকলেও ২৪ মে তারিখের নমুনাগুলো পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন চিকিৎসক প্রণয় কান্তি দাস।

সূত্র জানায়, ২৩ মে জামালপুরের শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে আটজনের নমুনায় করোনা পজিটিভ আসে। বাকিদের সবার করোনা নেগেটিভ আসে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে জামালপুর সদর উপজেলায় পাঁচজনের করোনা পজিটিভ আসে। তারা হলেন শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবের একজন নারী চিকিৎসকসহ চারজন চিকিৎসক, তাদের বয়স ৩২ থেকে ৪৬ বছরের মধ্যে। তাদের মধ্যে একজন জামালপুর সদর হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগ থেকে এবং বাকি তিনজন চিকিৎসক শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের প্রভাষকের পদ থেকে প্রেষণে পিসিআর ল্যাবে যোগদান করেন। সদরের অপর একজন হলেন শহরের শহীদ হারুন সড়কের এক যুবক (৩০)। এই যুবকের এক সহোদর জামালপুর পিসিআর ল্যাবের টেকনিশিয়ান হওয়ায় সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন তার ভাইয়ের সংস্পর্শে আসার কারণেই হয়তো তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া বকশীগঞ্জ উপজেলায় আক্রান্ত দু’জনের মধ্যে উপজেলা হাসপাতালের একজন চিকিৎসক (৩২) এবং একই উপজেলার দক্ষিণ কামালপুর গ্রামে ঢাকাফেরত একজন নারী (৪৫) রয়েছেন। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নে মুন্সিগঞ্জফেরত একজন ধানাকাটা শ্রমিকের (২৫) করোনা পজিটিভ আসে। মুন্সিগঞ্জ থেকে এলাকায় ফেরার পর ১২ জন ধানকাটা শ্রমিককে বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের শাহজাদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোয়ারেন্টিনে রেখে প্রত্যেকের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাদের মধ্যে একজন শ্রমিকের করোনা পজিটিভ আসে।

সংশ্লিষ্ট ইউএইচএফপিওরা বাংলারচিঠিডটকমকে জানান, জামালপুর পিসিআর ল্যাবের চারজন চিকিৎসকের মধ্যে একজনকে জামালপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক ভবনে, বাকি তিনজন প্রভাষককে শহরের একটি আবাসিক হোটেলে আইসোলেশনে এবং জামালপুর শহরের শহীন হারুন সড়কের ওই যুবককে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া বকশীগঞ্জ উপজেলায় আক্রান্ত চিকিৎসককে উপজেলা হাসপাতালের আবাসিক ভবনে এবং একই উপজেলার দক্ষিণ কামালপুর গ্রামের ওই নারীকে ২৪ মে সকালে তার বাড়ি লকডাউনসহ তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। দেওয়ানগঞ্জের ওই ধানকাটা শ্রমিককে জামালপুরে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

জামালপুরের সিভিল সার্জন চিকিৎসক প্রণয় কান্তি দাস বাংলারচিঠিডটকমকে জানান, নতুন করে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়া আটজনের মধ্যে আটজনের আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

সিভিল সার্জন আরও জানান, জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে কর্মরত চারজন চিকিৎসকের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ায় ২৪ মে সকাল থেকে ২৪ ঘণ্টার জন্য এই ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে পুরো পিসিআর ল্যাবটি জীবাণুমুক্ত করা হবে এবং যথারীতি ২৫ মে সকাল থেকে ল্যাবের কার্যক্রম পুনরায় চালু করা হবে। একদিন ল্যাব বন্ধ থাকলেও ২৪ মে সকালে শতাধিক নমুনা ময়মনসিংহের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে এবং আজকে রাতের মধ্যেই নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাঠাবে বলে সেখানকার কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছেন।

Views 47 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad