এবার জামালপুরের সিভিল সার্জন করোনায় আক্রান্ত, একদিনে আক্রান্ত ৬

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
বাংলারচিঠিডটকম

জামালপুরে সিভিল সার্জন, দু’জন চিকিৎসক ও দু’জন ব্রাদারসহ নতুন করে আরো ছয়জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হযেছেন। ২৮ এপ্রিল নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা পজেটিভ আসে। এ নিয়ে জেলায় মোট ৫৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো। একই সাথে সিভিল সার্জনসহ ১০ জন চিকিৎসক ও নার্স-ব্রাদারসহ ১৮ জন স্বাস্থ্যকর্মীকে নিয়ে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মোট ২৮ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ময়মনসিংহের করোনা পিসিআর ল্যাব থেকে ২৮ এপ্রিল দুই দফায় আসা নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে নতুন করে আরো ছয়জনের করোনা পজেটিভ আসে। তাদের মধ্যে জামালপুরের সিভিল সার্জন চিকিৎসক আবু সাঈদ মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান (৪৬), শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ জামালপুরের মেডিসিন বিভাগের একজন সহকারী অধ্যাপক (৪০), জামালপুর সদর হাসপাতালের ইউনানি বিভাগের একজন চিকিৎসা কর্মকর্তা (৪৬) ও ২৬ থেকে ২৮ বছর বয়সের জ্যেষ্ঠ স্টাফ নার্স পদের দু’জন ব্রাদার, তাদের একজনের বাড়ি সরিষাবাড়ী উপজেলার আওনা ইউনিয়নের পাখিমারা গ্রামে এবং অপরজনের বাড়ি কিশোরগঞ্জের কুলিয়ার চরে।

সূত্রটি আরো জানায়, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ইউনানি চিকিৎসা কর্মকর্তা ও দু’জন ব্রাদার জামালপুরের প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টারে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার দায়িত্ব পালন শেষে কয়েকদিন ধরে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা পজেটিভ আসে।

এছাড়া নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার বাঁশচড়া ইউনিয়নের বৈঠামারী গ্রামের সাভারফেরত একজন পুরুষ গার্মেন্টকর্মী (৩০) রয়েছেন। তিনি ওই গ্রামের আগে করোনায় আক্রান্ত এবং বর্তমানে ময়মনসিংহের এসকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একজন রোগীর সাথে সাভারের একই গামের্ন্টের কর্মী।

এদিকে স্বয়ং সিভিল সার্জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসায় জেলায় কর্মরত চিকিৎসকসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের কয়েকজনের সাথে কথা বলে তাদেরকে বেশ চিন্তিত মনে হয়েছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সিভিল সার্জনের সংস্পর্শে আসা কয়েকজন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী দ্রুত তাদের নমুনা পরীক্ষা করাবেন বলেও জানিয়েছেন।

সিভিল সার্জন চিকিৎসক আবু সাঈদ মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান এ প্রতিবেদককে জানান, আজকে তার করোনা শনাক্ত হওয়ায় তিনি দাপ্তরিক কাজ বন্ধ রেখেছেন। একইদিনে তাকে সহকারী পরিচালক পদে পদোন্নতি দিয়ে ঢাকায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কার্যালয়ে বদলির জরুরি আদেশ এসেছে। প্রশাসনিক দায়-দায়িত্ব বুঝিয়ে দিতে দুয়েকদিন তার কার্যালয়ের গেস্টরুমেই আইসোলেশনে থাকার পর তিনি ময়মনসিংহে নিজ বাসায় আইসোলেশনে থাকবেন বলে এ প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন।

জামালপুর সদরের ইউএইচএফপিও চিকিৎসক মো. মাহফুজুর রহমান সোহান এ প্রতিবেদককে জানান, নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া ছয়জনই জামালপুর সদরের। তাদের মধ্যে সিভিল সার্জন, দু’জন চিকিৎসক ও দু’জন ব্রাদারের কাকে কোথায় আইসোলেশনে রাখা হবে তা নিয়ে আলোচনা চলছে। এছাড়া সদরের বাঁশচড়া ইউনিয়নের বৈঠামারী গ্রামের করোনা আক্রান্ত গার্মেন্টকর্মীকে রাতেই জামালপুর সদর হাসপাতালের স্বতন্ত্র করোনা আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তির জন্য তাকে বাড়ি থেকে আনার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

Views 29 ফেসবুকে শেয়ার করুন!
sarkar furniture Ad
Green House Ad